ঝালকাঠিতে ইউপি সদস্যকে নির্যাতনে হত্যার অভিযোগে এসআই’র বিরুদ্ধে মামলা

৯:৪০ পূর্বাহ্ণ | সোমবার, অক্টোবর ১৫, ২০১৮ বরিশাল

মো:নজরুল ইসলাম, ঝালকাঠি প্রতিনিধি:: ঝালকাঠিতে ঘুষের দাবিতে ইউপি সদস্যকে নির্যাতন করে হত্যার অভিযোগে সদর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) দেলোয়ার হোসেনের বিরুদ্ধে দুর্নীতি প্রতিরোধ আইনে (৫)২ ধারায় মামলা হয়েছে।

রবিবার দুপুরে সদর উপজেলার লেশপ্রতাপ গ্রামের নিহত ইউপি সদস্য খলিলুর রহমান মন্টুর স্ত্রী নাজমা বেগম বাদী হয়ে ঝালকাঠির জ্যেষ্ঠ বিশেষ জজ আদালতে এ মামলা দায়ের করেন। আদালতের বিচারক জেলা ও দায়রা জজ মো. ইখতিয়ারুল ইসলাম মল্লিক দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) বরিশাল অঞ্চলকে তদন্ত করে আগামী ২৬ নভেম্বরের মধ্যে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেন। মামলায় এসআই দেলোয়ার ছাড়াও  আরো সাতজনকে আসামী করা হয়।

বাদীর আইনজীবী আব্দুর রশিদ সিকদার জানান, বাসন্ডা ইউনিয়নের লেশপ্রতাপ গ্রামের এক ব্যবসায়ী স্থানীয় ইউপি সদস্য ও খলিলুর রহমান মন্টুর বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করেন। এ মামলায় এসআই দেলোয়ার হোসেন ইউপি সদস্য মন্টুর কাছে গত ১৪ সেপ্টেম্বর একলাখ টাকা ঘুষ দাবি করেন। দাবিকৃত টাকা না দেওয়ায় খলিলুর রহমান মন্টুকে বেদম মারধর করেন ওই এসআই। এতে তাঁর একটি পা ভেঙে যায়। এ অবস্থায় তাকে গ্রেপ্তার করে বরিশাল শেরেবাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের কারা শাখায় ভর্তি করা হয়। গত ৩ অক্টোবর হাসপাতালের কারা শাখায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু হয় ওই ইউপি সদস্যর।

মামলার বাদী নাজমা বেগম জনান, আমার স্বামীকে একটি মিথ্যা মামলায় গ্রেপ্তারের ভয় দেখিয়ে উপপরিদর্শক (এসআই) দেলোয়ার হোসেন এক লাখ টাকা দাবী করে ২৫ হাজার টাকা নিয়েছেন। এর পরও এসআই দেলোয়ার বাকি টাকার জন্য আমার স্বামীকে তার বাসায় ডেকে নিয়ে নির্মম ভাবে পিটিয়ে পাঁ ভেঙ্গে হাসপাতালে ভর্তি করান। মিথ্যা মামলায় ঘুষের টাকা নিয়েও স্বামীকে নির্যাতনে হত্যা এবং সন্তানদের এতিম করার জন্য এসআই দেলোয়ারের বিচার দাবী করেন নিহতের স্ত্রী নাজমা বেগম।

নির্যাতনে পাঁ ভাঙ্গার বিষয়টি অস্বিকার করে ঝালকাঠি সদর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) দেলোয়ার হোসেন জানান, তার বিরেুদ্ধে আনীত অভিযোগ মিথ্যা ও উদেশ্য প্রনোদিত। নিহত ইউপি সদস্য খলিলুর রহমান মন্টুর বিরুদ্ধে একটি চাঁদাবাজির মামলা থাকায় তাকে গ্রেফতার করতে গেলে সে (ইউপি সদস্য) রিক্সা থেকে লাফ দিয়ে পালিয়ে যাওয়ার সময় পাঁ ভেঙ্গে যায় বলে জানান এসআই দেলোয়ার হোসেন।