লালনের প্রেমের টানে বাংলাদেশে ফরাসি তরুণী, বিয়ে করে পেতেছেন সংসার

৪:২৬ অপরাহ্ণ | বুধবার, অক্টোবর ১৭, ২০১৮ সাফল্যের বাংলাদেশ

সময়ের কণ্ঠস্বর: ২০১৬ সালে বাউল সম্রাট লালন শাহ-এর জীবনদর্শন নিয়ে গবেষণা করতে বাংলাদেশে এসে লালন দর্শনের প্রেমে পড়ে যান ফরাসি তরুণী দেবোরা। আত্মিক শান্তির উদ্দেশ্যে এদেশে এসে গুরুর কাছে দীক্ষা নিয়েছেন। বাউলদের এই জীবনাচারে প্রশান্তি খুঁজে পেয়েছেন তিনি। এরপর থেকে বসবাস করছেন কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলায়।

এর মধ্যে কয়েকবার ফ্রান্সে গেছেন। কিন্তু সেখানে গিয়ে আর বেশি দিন থাকতে পারেননি। কয়েকদিন পরই লালনের প্রেমের টানে আবারও ফিরে এসেছেন লালন ধামে। ফিরে এসে বিয়ে করে সংসার পেতেছেন এই তরুণী। নাম বদলে হয়েছেন দেবোরা জান্নাত।

দৌলতপুর উপজেলার প্রাগপুরে ফকির নহির শাহ-এর আস্তানায় জান্নাতের বসবাস। কিছু দিন আগে এই আস্তানায় বসবাসকারী নহির শাহ-এর আরেক শিষ্য রাজনকে বিয়ে করেছেন দেবোরা জান্নাত। পেতেছেন সংসার। কারণ হিসেবে দেবোরা জান্নাত উল্লেখ করেন, সংসার হলো সমাজ, সংসার হলো ঘর। এই চিন্তা-চেতনা থেকে ঘর-সংসার করতেই গুরুজির শিষ্যকে বিয়ে করেছি। আমি শান্তি খুঁজে পেয়েছি এদেশে, এই লালনের প্রেমে। তাই আমি আর ফ্রান্সে ফিরে যাবো না।

দেবোরা জান্নাত বলেন, ‘২০১৬ সালে প্রথম লালনের দেশ কুষ্টিয়ায় আসি। লালনের গবেষণার জন্য এসে আমি আর ফিরে যেতে পারিনি। মায়া পড়ে গেছে। প্রথমে আমি বাংলা ভাষা জানতাম না। কিন্তু ভাষা না জানলেও আমি গুরুজির সঙ্গে সাধুসঙ্গতে গেলাম। সাধুসঙ্গতে গিয়ে সেখানকার শৃঙ্খলা ও ভাব-বিনিময়ের মধ্যে যে লালন দর্শন পেলাম সেখানে ভাষা কোনো বিষয়ই ছিল না।’