কর্তৃত্ব করতে না দেয়ায় ইউপি সদস্যকে পেটালেন দেবররা

৫:৩৫ পূর্বাহ্ণ | সোমবার, অক্টোবর ২২, ২০১৮ বরিশাল

কৃষ্ণ কর্মকার, বাউফল প্রতিনিধি: কর্তৃত্ব করতে না দেওয়ায় পটুয়াখালীর বাউফল উপজেলার নওমালা ইনিয়নের নির্বাচিত এক নারী ইউপি সদস্যকে বেধরক ভাবে পেটালেন দেবররা।

শনিবার বিকেলে ওই ইউপি সদস্যের নিজ বাড়িতে ঘটে এ ঘটনা। গুরুতর আহত অবস্থায় ওই ইউপি সদস্যকে ওই দিনই সন্ধায় উপজেলার স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। নারী ইউপি সদস্যরে নাম লাইজু। তিনি ওই ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডের নির্বাচিত ইউপি সদস্য।

লাইজু বেগম জানান, প্রায় ৬ মাস আগে তার স্বামী ইউপি সদস্য রফিকুল ইসলাম মারা যান। এরপর তিনি পুনরায় ওই ওয়ার্ডে উপ-নির্বাচনে ইউপি সদস্য নির্বাচিত হন। ইউপি সদস্য নির্বাচিত হওয়ার পর থেকেই তার দেবররা তাকে রান্নাবান্নার কাজ করার নির্দেশ দেন। আর ইউপি সদস্য হিসেবে সকল দায়িত্ব দেবরদের ওপর ছেড়ে দিতে বলেন। এতে লাইজু বেগম অপারগতা প্রকাশ করলে দেবররা তার ওপর ক্ষুদ্ধ হন। এ নিয়ে  শনিবার কথাকাটাকাটি হলে লাইজু বেগমকে তার দেবর মামুন, করিম ও শাহাবুদ্দিন লাঠি ও বাঁশের কঞ্চি দিয়ে পিটিয়ে জখম করেন।

 খবর পেয়ে ইউপি সদস্য লাইজু বেগমের মেয়ে সেতু আক্তার মীম (১৯) ওই দিন সন্ধ্যার পরে বাপের বাড়ি গিয়ে জানতে চাইলে মীমকেও মারধর করে তার মাথা ফাটিয়ে দেয় তার চাচীরা।

এ বিষয়ে সংবাদকর্মীরা যোগাযোগ করলে করিম হাওলাদার ও মামুন হাওলাদার মারধরের বিষয়টি অস্বীকার করেছেন।

এ বিষয়ে বাউফল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, এ বিষয়ে কোনো অভিযোগ পাই নাই। অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।