লাল শাকের স্বাস্থ্য উপকারিতা ও পুষ্টিগুণ

লাইফস্টাইল ডেস্ক: লাল শাক আমরা সকলেই চিনি। লাল শাক খেতে অনেকেই খুব ভালবাসে। লাল শাক শুধু শাক হিসেবেই নয় এটি মাছ দিয়েও রান্না করে খাওয়া যায়। লাল শাকে রয়েছে হাজারো স্বাস্থ্য উপকারীতা ও পুষ্টিগুণ। যা আপনার শরীরকে সুস্থ্য রাখার পাশাপাশি স্কিনকে সতেজ রাখবে। তাই সম্ভব হলে প্রতিদিনই লালশাক খান। এটি শীতকালীন একটি সবজি কিন্তু বর্তমানে এটি সারা বছরই পাওয়া।

লাল শাকের পুষ্টিগুণঃ

প্রতি ১০০ গ্রাম লাল শাকে আছে ক্যালসিয়াম ৩৭৪ মি. গ্রা., শর্করা ৪.৯৬ মি. গ্রা., প্রোটিন ৫.৩৪ মি. গ্রা., স্নেহ ০.১৪ মি. গ্রা., ভিটামিন বি১ ০.১০ মি. গ্রা., ভিটামিন বি২ ০.১৩ মি. গ্রা., ভিটামিন সি ৪২.৯০ মি. গ্রা., ক্যারোটিন ১১.৯৪ মি. গ্রা., অন্যান্য খনিজ ১.০৬ মি. গ্রা., খাদ্য শক্তি ৪৩ কিলোক্যালরি।

লাল শাকের স্বাস্থ্য উপকারিতাগুলো নিচে দেওয়া হলঃ

ক্যান্সার প্রতিরোধে:

লাল শাকের এন্টি অক্সিডেন্ট ক্যান্সার প্রতিরোধ করে।

মস্তিষ্ক ভাল রাখে:

মস্তিষ্ক ও হৃদপিণ্ডকে শক্তিশালী করতে লাল শাকের ভূমিকা অনেক।

কিডনি সমস্যা দূর করতে:

কিডনি ফাংশনগুলো ভালো রাখতে ও কিডনি পরিষ্কার রাখতে লাল শাক খুব ভালো।

কোলেস্টরল স্বাভাবিক রাখতে:

লাল শাক রক্তে কোলেস্টরলের মাত্রা স্বাভাবিক রাখতে সহায়তা করে। ফলে হৃদরোগের ঝুঁকি কমে।

রক্তশূন্যতা রোধ করে:

দেহের রক্তশূন্যতা রোধ করতে লাল শাক খুব উপকারী কারণ এতে প্রচুর পরিমাণে আয়রন রয়েছে।

দৃষ্টি শক্তি বৃদ্ধি:

লাল শাকে আছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি যা চোখের দৃষ্টি শক্তি বৃদ্ধির জন্য খুব উপকারী।

ক্যালসিয়ামের চাহিদা পূরণে:

বিশেষ করে দাঁতের সুস্থতা, হাঁড় গঠন, গর্ভবতী এবং প্রসূতি মায়েদের দৈনিক ক্যালসিয়ামের চাহিদা পূরণে এই শাক উপকারী।

চুলের গোড়া মজবুত করে:

 লাল শাক চুলের গোড়া মজবুত করে এবং চুলে মিনারেল ও পুষ্টি যোগায়।