অনুশকার জীবন বদলে দেয় যে ছবি

১১:৪৮ অপরাহ্ণ | বুধবার, ডিসেম্বর ১২, ২০১৮ বিনোদন

বিনোদন ডেস্ক :: ১০ বছর আগের কথা। বলিউডে পা রাখেন হিন্দি চলচ্চিত্র অঙ্গনের অন্যতম অপরিহার্য অভিনেত্রী আনুশকা শর্মা। নিজের প্রথম সিনেমায় জুটি হিসেবে পেয়েছিলেন বলিউড বাদশাহ শাহরুখ খানকে। তারপর আর পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি আনুশকাকে।

মাত্র ২০ বছর বয়সে বলিউডে অভিষেক হয় আনুশকা শর্মার। পর্দায় আত্মবিশ্বাসী অভিনয়দক্ষতার জন্য প্রশংসা পেয়েছেন প্রচুর। আর এর সবই তার কঠোর পরিশ্রমের ফসল।

বুধবার বলিউডে অভিষেকের ১০ বছর পূর্তি পালন করছেন আনুশকা শর্মা। এই দীর্ঘ পথে অসংখ্য ভক্ত জুটেছে, পেয়েছেন অভিনয়ে ব্যাপক প্রশংসা। বক্স অফিসে ‘হিট’ সিনেমার স্বাদও পেয়েছেন তিনি।

তবে সব ছাড়িয়ে ‘রব নে বানা দি জোড়ি’কেই নিজের জীবন বদলে দেয়ার উৎস হিসেবে দেখছেন আনুশকা শাহরুখ খান ও আনুশকা শর্মা অভিনীত ‘রব নে বানা দি জোড়ি’ সিনেমাটি ২০০৮ সালের ১২ ডিসেম্বর মুক্তি পেয়েছিল।

তিনি বলেছেন, এই ছবিটি তার জীবনের মোড় ঘুরিয়ে দিয়েছে। আর এর জন্য সমস্ত প্রশংসা দিচ্ছেন প্রযোজক আদিত্য চোপড়া ও সুপারস্টার শাহরুখ খানকে।

আনুশকা জানালেন, পরিচালক আদিত্য চোপড়া তাকে বলেছিলেন, ‘আমরা তোমাকে নিচ্ছি, কারণ অন্য যে কারো চাইতে নিজের পায়ে দাঁড়াতে তুমি একাই যথেষ্ট।’

একই কথা তাকে বলেছিলেন যশ চোপড়াও। সংবাদ সংস্থা পিটিআইকে আনুশকা বলেন, ‘ওই কথাগুলো শোনার পর আমার মতো একজন তরুণের আত্মবিশ্বাস বহুগুণ বেড়ে যায়। এমন সব মানুষের সঙ্গে কাজ করেছি, যারা খুব ভালো আর উদার। এখনো তাদের সঙ্গে আমার সুন্দর সমীকরণ। ওই সিনেমায় তাদের সঙ্গে কাজ করতে পেরে আমি সৌভাগ্যবান। এটা আমার জীবনটাই বদলে দিয়েছে। এটা এমন, যা আমার করা সিনেমার মধ্যে বিশেষ কিছু।’

এই সুন্দরীর মন্তব্য, ‘নিজের ভেতরের শিল্পটাকে মূল্য দিতে জানি, অভিনয়কে মূল্য দিই, মনোযোগ দিই আর কাজ করে যাই। আমি একই চিত্রনাট্য বারবার পড়ি, প্রতিদিন; এর ভেতর নতুন কিছু খোঁজার চেষ্টা করি। তারা বুঝতে পারেন, সিনেমায় আমি সর্বোচ্চ শ্রম দিই। আর ঠিক এ কারণেই আমি এত বেশি আত্মবিশ্বাসী। যখন সিনেমা করি, পূর্ণ প্রস্তুত হয়েই করি। যদি কঠোর পরিশ্রম করো, আত্মবিশ্বাস আসবেই।’

আনুশকা আরো বলেন, যখন তিনি কোনো সিনেমার চিত্রনাট্য পড়েন, সঙ্গে সঙ্গে নোট টুকে রাখেন। আর এতে নিজের চরিত্র বুঝতে সুবিধা হয় তার।’

Loading...