সাড়ে তিনমিনিটের ভিডিওতে ভালোবাসার নানা টানাপোড়েনের ব্যতিক্রমী গল্প!

৩:২১ পূর্বাহ্ণ | শুক্রবার, ডিসেম্বর ১৪, ২০১৮ বিনোদন

সময়ের কণ্ঠস্বর, বিনোদন আপডেট- ভাঙামন কত আর জুড়বি হৃদয়, ভালোবাসা জীবনে একবারি হয় … ভালোবেসে কি কেও সুখি? সময় অসময় খুজি পরিচয় …
কন্ঠশিল্পী হৈমন্তী রক্ষিতের ব্যপক সাড়াজাগানো অডিও এলব্যাম ‘দেয়াল কাহিনী’ থেকে এবার ‘ভাঙামন’ গানের ভিডিও নিয়ে দর্শকদের সামনে হাজির হলেন হৈমন্তী।

ব্যতিক্রমী দৃশ্যায়ন আর চমৎকার উপস্থাপনায় ১৩ ডিসেম্বর, বৃহস্পতিবার গানটি অবমুক্ত হয়েছে ইউটিউবে বাংলা গানের জনপ্রিয় চ্যানেল ‘ধ্রুব মিউজিক স্টেশান’ থেকে। গানটির ভিডিওতে মডেল হিসেবে আছেন অন্তু করিম এবং পি জে হেলেন।

তিন মিনিট ২৭ সেকেন্ডের মিউজিক ভিডিওটি শুধুই হালের ভিডিও গানের গদবাধা উপস্থাপন নয়! ভিডিওটিতে প্রকাশ পেয়েছে পুরো একটি প্রেমের গল্প! সাড়ে তিনমিনিটেই  ভালোবাসার সম্পর্কে নানান চড়াই উতরাই আর জীবনের টানাপোড়েন উপস্থাপিত হয়েছে দারুণভাবেই।
অন্তু করিম এবং পি জে হেলেনের অভিনয়ে প্রকাশিত মিউজিক ভিডিওতে দেখা যায়, নাগরিক জীবনের ব্যস্ততায় ছোট ছোট ভুলবোঝাবুঝি থেকে শুরু হয় সম্পর্কের দুজনের দূরত্ব! সে দূরত্ব একসময় মান-অভিমান এর সীমানা পেরিয়ে ক্রমশই প্রবল হয়!


প্রিয় মানুষটি (হেলেন) দূরে চলে যাবার পরই অন্তু উপলব্ধি করে এক বিশাল শুন্যতা! জীবনের প্রতিটি অংশে ভালোবাসার মানুষটির অনুপস্থিতি আর ভালোবাসার গভীরতা দারুন পোড়ায় তাকে …একসময় সে উপলব্ধি থেকেই অভিমানের বরফ গলিয়ে দুজনের ফিরে আসার আকুলতা নিয়েই শেষ হয় গল্প।

এর আগে চলতি বছরের শুরুতেই, জানুয়ারীতে ধ্রুব মিউজিক স্টেশন থেকে প্রকাশিত হয়েছিলো কন্ঠশিল্পী হৈমন্তী রক্ষিতের ৬ষ্ঠ একক অ্যালবাম ‘দেয়াল কাহিনী’।
‘দেয়াল কাহিনী’ অ্যালবামে গান রয়েছে মোট ছয়টি। গানগুলোর শিরোনাম ‘দেয়াল কাহিনী’, ‘রঙিলা’, ‘বর্ষা’, ‘বলছি তোমায়’, ‘সাত সমুদ্দুর’ এবং ‘তুই বিহনে’। গানের কথা লিখেছেন আপন আহসান ও রানা। ‘ভাঙামন’ গানটি লিখেছেন স্বপ্নীল।

ইতমধ্যেই শ্রোতাদের হৃদয় জয় অ্যালবামের সব গুলো গানের সুর ও সঙ্গীতায়োজন করেছেন বাপ্পা মজুমদার। অলোক হাসানের পরিচালনায় গানটির ভিডিও নির্মান করেছেন মোশন রক এন্টারটেইনমেন্ট।

গানটি প্রসঙ্গে হৈমন্তী বলেন-‘আমি মনেপ্রাণে একজন সংগীতশিল্পী। গানই আমার আরাধনা, গানই আমার সাধনা। পথ চলতে গিয়ে শুধু সবার দোয়া আর সঙ্গীতাঙ্গনের সবার সহযোগিতা চাই। একজন শুদ্ধ সঙ্গীতশিল্পী হিসেবেই নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করতে চাই। অনেক যত্ন এবং সময় নিয়ে এই কাজটি করেছি। বাপ্পা দা মনের মতো করে গানটির সুর ও সঙ্গীতায়োজন করেছেন। গানটি দর্শক-শ্রোতাদের ভালো লাগলেই আমার ভালো শ্রম স্বার্থক হবে।’

গানটি প্রসঙ্গে জানতে চাইলে বাপ্পা মজুমদার জানালেন, ‘হৈমন্তী নিঃসন্দেহে ভালো গায়। এই গানটিতে দর্শক-শ্রোতারা তার প্রমাণ পাবেন আরও একবার ।’

গানটি ইউটিউব ছাড়াও শুনতে পাওয়া যাবে ডিএমএস ওয়েব সাইট , জিপি মিউজিক এবং বাংলালিংক ভাইবে।

Loading...