সংবাদ শিরোনাম
  • আজ ২৯শে আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

কর্ণফুলীতে বৈধ অস্ত্র ২৯টি, জমা পড়েছে ১১টি

১২:২৫ অপরাহ্ণ | সোমবার, ডিসেম্বর ২৪, ২০১৮ চট্টগ্রাম

জে. জাহেদ, চট্টগ্রাম ব্যুুরো: একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষে আগামী ২৪ ডিসেম্বরের মধ্যে লাইসেন্সধারী সব অস্ত্র জমা দিতে সংশ্লিষ্টদের নির্দেশনা দিয়েছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)।

নির্দেশনা মতে, ৩০ ডিসেম্বর জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে সব বৈধ অস্ত্র জমা নেয়া প্রয়োজন। নির্বাচনকে সামনে রেখে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক প্রজ্ঞাপন অনুসারে সকল ধরনের আগ্নেয়াস্ত্র ও গোলাবারুদ জমা দেওয়ার নির্দেশনায় কর্ণফুলী উপজেলায় বৈধ অস্ত্র জমা দিতে শুরু করে মালিকেরা।

থানা সুত্রে জানা যায়, রবিবার (২৩শে ডিসেম্বর) রাত ১১টা পর্যন্ত থানায় জমা পড়েছে ১১টি আগ্নেয়াস্ত্র। বাকি অস্ত্রগুলো কোথায় জমা হতে পারে এমন প্রশ্নে কর্ণফুলী থানার অপারেশন অফিসার মোহাম্মদ হোসাইন জানান, বেসরকারি বৈধ অস্ত্র গুলো স্ব স্ব মালিকগণ তাদের হেফাজতে থেকে বিভিন্ন পার্শ্ববর্তী থানা (বন্দর, কোতোয়ালি) কিংবা ব্যাংকে জমা দিতে পারেন বলে মন্তব্য করেন তিনি।

পুলিশের দেওয়া তথ্যমতে, কর্ণফুলী থানাধীন ৫টি ইউনিয়নে বেসরকারি বৈধ অস্ত্র রয়েছে ২৯টি। ইতিমধ্যে পুলিশের নির্দেশনা ও তৎপরতায় জমা পড়েছে ১১টি। বাকিগুলোও জমা পড়তে শুরু করেছে বিভিন্ন থানায়।

কর্ণফুলীতে ২৯টি বৈধ আগ্নেয়াস্ত্রের মধ্যে রয়েছে দুনলা বন্দুক, শটগান, এসবিবিএল ১২ বোর, ডিবিবিএল ১২ বোর, ২২ বোর পিস্তল, ৩২ বোর রিভলবার, ডিবিবিএল, ২৫বোর পিস্তল বাই স্পেন ইত্যাদি।

আর এসব বৈধ লাইসেন্সধারী অস্ত্রের মালিকদের মধ্যে রয়েছে ডগলাস এলেন উইলিয়াম যিনি শাহমীরপুর এলাকায় বসবাস করেন। এছাড়াও বাকিরা হলেন – সাবেক চেয়ারম্যান, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী, কাফকোর নিরাপত্তাকর্মী, কাফকোর ডিপুটি ম্যানেজার, ম্যানেজার বিএফডিসি ক্যাটাগরি।

তবে সরকারি বা গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনার নিরাপত্তার ক্ষেত্রে এ নির্দেশনার বাইরে থাকবে। সব অস্ত্র সংশ্লিষ্ট থানায় জমা দিতে হবে। নির্দেশনার অনুলিপি মন্ত্রী পরিষদ বিভাগসহ সংশ্লিষ্ট সব দপ্তরে পাঠানো হয়েছে বলে উপজেলা প্রশাসন সুত্রে জানা যায়।

এ বিষয়ে কর্ণফুলী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সৈয়দ সামশুল তাবরীজ জানান, ইসি ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা অনুযায়ী আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে এ বিষয়ে জানানো হয়েছে। সংশ্লিষ্ট থানায় স্ব স্ব মালিকেরা আগ্নেয়াত্র জমা দিতে পারবেন। তবে নির্বাচনকালীন আইনশৃঙ্খলা রক্ষার স্বার্থে সংশ্লিষ্ট জেলা ম্যাজিস্ট্রেট যে কোন লাইসেন্সধারীকে তার আগ্নেয়াস্ত্র জমা দেওয়ার নির্দেশ দিতে পারবেন বলে জানা যায়।