বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ চুরির দায়ে ফিলিপাইনের ব্যাংক কর্মকর্তার কারাদণ্ড

বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ চুরির দায়ে ফিলিপাইনের ব্যাংক কর্মকর্তার কারাদণ্ড

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :: বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ চুরির চাঞ্চল্যকর ঘটনার মূল হোতা মায়া দেগুইতোকে অভিযুক্ত করেছে ফিলিপিন্সের আদালত। এতে, ৩২ থেকে সর্বোচ্চ ছাপ্পান্ন বছরের কারাদণ্ড হতে পারে তাঁর। ফিলিপিন্সের রাজধানী ম্যানিলাভিত্তিক রিজাল কমার্শিয়াল ব্যাংকিং কর্পোরেশন-আরসিবিসির সাবেক ম্যানেজার মায়া দেগুইতোকে দুর্নীতি ও অপকর্মের আটটি অভিযোগে দোষী সাব্যস্ত করেছে আদালত।

রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়, ফিলিপিন্সের আঞ্চলিক আদালত বৃহস্পতিবার এই রায়ে মুদ্রাপাচারের আট দফা অভিযোগে দেগিতোকে দোষী সাব্যস্ত করে প্রতিটি ধারায় ৪ থেকে ৭ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে। সেই সঙ্গে ১০ কোটি ৯০ লাখ ডলার জরিমানা করা হয়েছে তাকে।

২০১৬ সালে বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় ব্যাংকের অর্থ চুরির ঘটনায় এই প্রথমবারের মতো কাউকে দোষী সাব্যস্ত করা হয়েছে। চারটি অজ্ঞাত ও কাল্পনিক ব্যাংক হিসাব থেকে অর্থ উত্তোলনে ও জমা দেয়ার ক্ষেত্রে সহায়তা করার অপরাধে দেগিতো দায়ী বলে জানিয়েছেন আদালত।

২০১৬ সালের সিনেটের তদন্তের শুনানিতে দেগিতো বলেন, তাকে বলির পাঁঠা বানানো হয়েছে। আরসিবিসি ব্যাংকের সর্বোচ্চ পর্যায়ের কর্মকর্তাদের অংশগ্রহণ হলেই কেবল অর্থপাচার করা সম্ভব।

২০১৬ সালের ৪ ফেব্রুয়ারি যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল রিজার্ভ ব্যাংক অব নিউইয়র্কে (ফেড) রক্ষিত বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভের ১০ কোটি ১০ লাখ ডলার চুরি হয়।