বিয়ের তিন মাসের মাথায় নববধূর আত্মহত্যা

বিয়ের তিন মাসের মাথায় নববধূর আত্মহত্যা

উজ্জ্বল অধিকারী, বেলকুচি (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধিঃ মেহেদির রং না মুছতেই তিন মাসের মাথায় মারা গেলেন সুমাইয়া খাতুন (১৮) নামে এক নববধু।

বৃহস্পতিবার দুপুরে অভিমান করে স্বামীর বাড়ীর শয়ন ঘরের দরনার সাথে গলায় ওরনা পেছিয়ে সে আত্মহত্যা করে। ঐ দিন রাত ১০ টায় তার মৃতদেহ উদ্ধার করেছে সিরাজগঞ্জের বেলকুচি থানা পুলিশ।

সুমাইয়া খাতুন বেলকুচি পৌর এলাকার রতনকান্দি চরের তাঁত শ্রমিক আব্দুল্লাহ’র স্ত্রী ও জেলার কামারখন্দ উপজেলার বদ্রঘাট ইউনিয়নের কাচারীপাড়ার হামিদুল ইসলামের মেয়ে।

স্থানীয়রা জানায়, তিন মাস আগে জেলার কামারখন্দ উপজেলার বদ্রঘাট ইউনিয়নের কাচারীপাড়ার হামিদুল ইসলামের মেয়ে সুমাইয়ার বিয়ে হয় বেলকুচি পৌর এলাকার রতনকান্দি চরের মৃত আমির চানের ছেলে আব্দুল্লাহ’র সাথে। বিয়ের পর থেকেই স্বামীর বাড়ীতে থাকতো সে। বৃহস্পতিবার স্বামী তাঁতের কাজ করতে কর্মস্থল গেলে দুপুরে সকলের অগচরে সুমাইয়া খাতুন শয়ন ঘরের ধরণার সাথে গলায় ওরনা পেছিয়ে আত্মহত্যা করে।

বেলকুচি থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) শামীম রেজা মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, ৯৯৯ থেকে কল পেয়ে বৃহস্পতিবার রাত ১০টার দিকে ঘটনার স্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। শুক্রবার সকালে মরদেহ মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। এ ব্যাপারে সুমাইয়ার বাবা বাদি হয়ে থানায় ইউডি মামলা করেছে।