জামালপুরে মালিক-শ্রমিক সংগঠনের নামে চাঁদা আদায়, বিপাকে যাত্রীরা

আবদুল লতিফ লায়ন, জামালপুর প্রতিনিধি: জেলায় মালিক সমিতি-শ্রমিক ইউনিয়নের মোড়ে মোড়ে চাঁদাবাজির কারণে অতিরিক্ত ভাড়া গুণতে হচ্ছে যাত্রীদের। সড়ক অবরোধ কর্মসূচি পালন করেও চাঁদাবাজদের কবল থেকে মুক্তি মিলছে না।

জানা যায়, প্রতিদিন জেলা থেকে সাত উপজেলায় প্রায় ৫ সহস্রাধিক অটোরিকশা ও ইজিবাইক চলাচল করে থাকে। এসব যানবাহনের ওপর ভিত্তি করে মালিক সমিতি ও শ্রমিক ইউনিয়ন নামে গড়ে উঠেছে নানা সংগঠন। মালিক-শ্রমিকদের স্বার্থ সংরক্ষণের নামে গড়ে ওঠা এসব সংগঠন এখন চাঁদাবাজ সংস্থায় পরিণত হয়েছে বলে অভিযোগ ভূক্তভোগীদের।

জেলা-উপজেলা সড়কে চলাচলকারী ছোট ছোট এসব গাড়ির চালকদের ৬-৭টি পয়েন্টে কথিত সংগঠনকে দিনে ১৬০ টাকা থেকে ২০০ টাকা পর্যন্ত চাঁদা দিতে হয়। ফলে চালকদের আয়ের এক-তৃতীয়াংশ টাকা চলে যায় চাঁদার খাতায়।

সম্প্রতি চাঁদাবাজি বন্ধে চালকরা জামালপুর-দেওয়ানগঞ্জ সড়কে অবরোধ কর্মসূচির ডাক দেয়। পরে পুলিশের আশ্বাসে অবরোধ তুলে নেয়া চালকরা। কিন্তু এখনও প্রতিকার মিলেনি। ফলে চাঁদাবাজরা আরো বেপরোয়া হয়ে উঠেছে বলে অভিযোগ চালকদের।

মালিক-শ্রমিক ইউনিয়ন নেতারা জানান, চালক- শ্রমিকদের প্রয়োজনেই বিভিন্ন পয়েন্টে সংগঠনের শাখা খোলা হয়েছে। অন্যদিকে চাঁদা ও সিএনজির দাম বৃদ্ধির অজুহাতে জামালপুর-ইসলামপুর-দেওয়ানগঞ্জ ৫০ টাকার ভাড়া ৬০ টাকা ও ৭০ টাকার ভাড়া ৯০ করেছে চালকরা। ভুক্তভোগী যাত্রীদের অভিযোগ, ভাড়া বাড়িয়ে যাত্রীদের কাছ থেকে চাঁদার টাকা উঠিয়ে নিচ্ছে চালকরা।

Sharing is.

Share on facebook
Share with others
Share on google
Share On Google+
Share on twitter
Share On Twitter
  • You May Also Like:
  • Top Views