ছয় দিনেও উদ্ধার হয়নি দীপা

১১:২১ অপরাহ্ণ | শনিবার, জানুয়ারি ১২, ২০১৯ বরিশাল

বরিশাল প্রতিনিধি :: বরিশালে ছয়দিন আগে নিঁখোজ হওয়া সাড়ে ৩ বছরের শিশু দীপা রানীকে (পুটি) উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি। দীপার বেঁচে থাকা না থাকা নিয়ে সংশয়ের মধ্যে দিন কাটাচ্ছেন তার বাবা-মা। তবে পুলিশের দাবী দীপাকে উদ্ধারের জন্য তাদের অভিযান অব্যহত রয়েছে।

দীপার বাবা বিনয় সমাদ্দার নিঁখোজ হওয়ার ঘটনার এক দিন পরে গত সোমবার (৭ জানুয়ারি) সকালে অজ্ঞাতনামাদের আসামি করে কোতোয়ালি মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। ইতোমধ্যে পুটির বাবার মোবাইল ৪০ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবিকারীদের মধ্যে চারজনকে আটক করা হয়েছে। আটকরা মুক্তিপণ দাবির কথা স্বীকার করলেও অপহরণের কথা স্বীকার করেনি। পরে রোববার (৬ জানুয়ারি) এ ঘটনায় সন্দেহভাজন ওই চারজনকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করা হয়।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা কোতোয়ালি মডেল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) সাইদুল ইসলাম বলেন, এ পর্যন্ত যে চারজনকে আটক করা হয়েছে তারা পুটি নিখোঁজ হওয়ার খবর মাইকে শুনে লোভে পরে মুক্তিপণ দাবি করেছিল বলে পুলিশকে জানিয়েছে। তবে ওই চারজনকে অধিক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য রিমান্ডের আবেদন করা হবে বলে তিনি জানান।

এদিকে ঘটনার ছয়দিন অতিবাহিত হলেও পুটিকে না পেয়ে নির্বাক হয়ে পরেছেন তার মা-বাবা। পুটির বাবা নগরের কাউনিয়া এলাকার মিষ্টির দোকানের কর্মচারী বিনয় সমাদ্দার বলেন, মেয়ে আমার কেমন আছে, কোথায় আছে, কি করছে, কিছুই জানতে পারিনি।

উল্লেখ্য, গত রোববার (৬ জানুয়ারি) সকাল ১০টার দিকে বরিশাল নগরের কলেজ রোড এলাকার শিশু দীপা ঘরের সামনেই খেলা করছিল। এর কিছুক্ষণ পর থেকেই তাকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছিলো না। প্রতিবেশিসহ নিকট আত্মীয় স্বজনদের কাছে খোঁজ খবর ও এলাকায় মাইকিং করেও দীপার সন্ধান না পেয়ে নিখোঁজ হওয়ার বিষয়টি থানা পুলিশকে অবহিত করা হয়। এরপর ৬ জানুয়ারি দুপুরের দিকে একটি অপরিচিত নম্বর থেকে পুটির বাবা বিনয় সমাদ্দারের নম্বরে কল আসে। অপর প্রান্তে থাকা ব্যক্তির নিজের নাম-পরিচয় গোপন রেখে মেয়েকে ফিরে পেতে ৪০ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে। এ সময় টাকা না পেলে পুটিকে হত্যার ও হুমকি দেয় অপহরণকারীরা।