সংবাদ শিরোনাম
  • আজ ৩০শে আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

এক রাতে কক্সবাজারে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ তিনজন নিহত

১০:৩৮ পূর্বাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, জানুয়ারি ২৪, ২০১৯ চট্টগ্রাম
sk-photo-10-01-11

সময়ের কণ্ঠস্বর, কক্সবাজার- কক্সবাজারের টেকনাফ ও মহেশখালীতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সঙ্গে পৃথক ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ৩ জন নিহত হয়েছে। এরমধ্যে টেকনাফে র‌্যাবের সঙ্গে দুইজন ‘ইয়াবা ব্যবসায়ী’ ও মহেশখালীতে পুলিশের সঙ্গে একজন ডাকাত নিহত হয়।

বৃহস্পতিবার ভোরে টেকনাফ উপজেলার সাবরাং ইউনিয়নের বাহারছড়াঘাট এলাকায় এবং মহেশখালী উপজেলার মাতারবাড়ী ইউনিয়নের শামলাপুর ঢালায় এ দুটি কথিত বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে।

এসময় অস্ত্র ও বিপুল পরিমাণ ইয়াবা উদ্ধার করা হয়। পুলিশ ও র্যাবের দাবি, নিহতরা চিহ্নিত ডাকাত ও মাদক ব্যবসায়ী।

টেকনাফ র‌্যাব-৭ ক্যাম্পের ইনচার্জ লেফটেন্যান্ট মির্জা শাহেদ মাহতাব জানান, বৃহস্পতিবার ভোর রাতে মেরিন ড্রাইভের যে কোন ঘাট এলাকায় ইয়াবা খালাসের গোপন সংবাদ পেয়ে র‌্যাবের একটি অভিযানিক দল নিয়মিত টহলে যায়। এক পর্যায়ে বাহারছড়া ঘাট বরাবরে গেলে র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে ওঁৎ পেতে থাকা মাদক ব্যবসায়ীরা র‌্যাব সদস্যদেরকে লক্ষ্য করে এলোপাতাড়ি গুলি ছোঁড়ে। র‌্যাবও আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি চালায়।

“এক পর্যায়ে তাদের গুলিতে দুই মাদক ব্যবসায়ী গুলিবিদ্ধ হলে অন্যান্যরা পালিয়ে যায়। এ সময় র‌্যাবের দুই সদস্য আহত হয়। গুলিবিদ্ধ অবস্থায় দুইজনকে উদ্ধার করে টেকনাফ স্বাস্থ্যাকমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্মরত চিকিৎিসক তাদের মৃত ঘোষণা করে। নিহতদের শরীরে গুলির চিহ্ন রয়েছে।”

মির্জা শাহেদ মাহতাব জানান, এ ঘটনায় ৫০ হাজার পিস ইয়াবা, ২টি পিস্তল, একটি ওয়ান শুটারগান ও ১৪ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়েছে। নিহত দুই মাদক ব্যবসায়ীর নাম ও পরিচয় সনাক্ত করা যায়নি। উদ্ধার লাশ দুটির ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানোর কার্যক্রম প্রক্রিয়ধীন রয়েছে।

অপরদিকে, মহেশখালী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) প্রভাষ চন্দ্র ধর বলেন, ‘ডাকাতির প্রস্তুতির খবর পেয়ে অভিযানে গেলে মহেশখালী উপজেলার মাতারবাড়ি ইউনিয়নের শামলাপুর ঢালায় পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে হেলাল উদ্দিন (৩০) নামে এক যুবক নিহত হয়েছে।

নিহত হেলাল একজন চিহ্নিত ডাকাত ও মাতারবাড়ি ইউনিয়নের হংসু মিয়াজিপাড়া এলাকার জাকির হোসেনের ছেলে।’