সংবাদ শিরোনাম
বাউফলে তাপস হত্যাকাণ্ডের বিচার চেয়ে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি | নওগাঁয় বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে কটূক্তি করায় যুবক গ্রেফতার | দেশে করোনায় একদিনে মৃত্যুর নতুন রেকর্ড, শনাক্ত আরও ২৭৪৩ | জামালপুরে করোনা উপসর্গ নিয়ে সাবেক মেম্বারের মৃত্যু | ডা. জাফরুল্লাহ’র সুস্থতা কামনায় গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রে দোয়া ও কোরআন খতম | মালয়েশিয়ায় করোনার ‘জাল সার্টিফিকেট’ বিক্রি, দুই বাংলাদেশি আটক | ৬ দফা দিবসে বঙ্গবন্ধুরর প্রতিকৃতিতে আ.লীগের শ্রদ্ধা | হবিগঞ্জে টানা বৃষ্টি ও ঢলে নিম্নাঞ্চল প্লাবিত, শাক সবজিসহ ফসলের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি | শ্রীপুরে খাবার সংকটে সহস্রাধিক বানর, ওদের কান্না থামাবে কে? | হেলিকপ্টারে ঢাকায় আনা হলো করোনা আক্রান্ত মন্ত্রী বীর বাহাদুরকে |
  • আজ ২৪শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

কোটালীপাড়ায় দরিদ্র মেধাবী দুই শিক্ষার্থী পেল নতুন স্কুল ড্রেস

৫:২৭ অপরাহ্ণ | রবিবার, জানুয়ারি ২৭, ২০১৯ মফস্বল সংবাদ
student

এইচ এম মেহেদী হাসানাত, ষ্টাফ রিপোর্টার, গোপালগঞ্জ: নতুন বছরের প্রায় এক মাস পেরিয়ে গেলেও স্কুল ড্রেস বানাতে পারেনি দরিদ্র মেধাবী দুই শিক্ষার্থী।

বিষয়টি জানতে পেরে এগিয়ে আসে গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়া উপজেলার তারাশী গ্রামের স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন জ্ঞানের আলো পাঠাগার। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে পোস্ট দিয়ে অর্থ সংগ্রহ করে নতুন স্কুল ড্রেস তৈরী ও শিক্ষা উপকরণ ক্রয় করে দেন।

আজ রবিবার বিকেলে জ্ঞানের আলো পাঠাগার কক্ষে শিক্ষার্থীদের হাতে নতুন স্কুল ড্রেস ও শিক্ষা উপকরণ তুলে দেন জ্ঞানের আলো পাঠাগারের সভাপতি সুশান্ত মন্ডল। এ সময় পাঠাগারের অন্যান্য সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

সুশান্ত মন্ডল জানান, উপজেলার তারাশী গ্রামের পিতৃহীন সোহেলী খানম ও দরিদ্র আবু সালেহ এর মেয়ে সুমাইয়া প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষায় মেধার পরিচয় দিয়ে শাহানা রশিদ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে ৬ষ্ঠ শ্রেণীতে ভর্তি হয়। কিন্তু একমাস পেরিয়ে গেলেও অর্থের অভাবে এই দুই শিক্ষার্থী স্কুল ড্রেস ও শিক্ষা উপকরণ সংগ্রহ করতে পারেনি। বিষয়টি জানতে পেরে আমরা আমাদের সংগঠনের ফেসবুক আইডিতে অর্থ সহায়তা চেয়ে একটি পোষ্ট দেই। এই পোস্ট দেখে কয়েকজন হৃদয়বান ব্যক্তি সহায়তার হাত বাড়িয়ে দেন। সেই অর্থ দিয়ে এই দুই শিক্ষার্থীকে নতুন স্কুল ড্রেস, জুতা, প্রয়োজনীয় কিছু বই, জ্যামিতি বক্স, টিফিন বক্স, কাগজ-কলমসহ শিক্ষা উপকরণ কিনে দেয়া হয়।

শিক্ষার্থী সোহেলী খানম ও সুমাইয়া খানম জানায়, এতদিন আমরা স্কুল ড্রেস পড়ে স্কুলে যেতে পারিনি। আজ আমরা নতুন স্কুল ড্রেস পেলাম। আগামীদিন থেকে আমরা স্কুল ড্রেস পড়ে স্কুলে যাবো। আমাদের খুব ভাল লাগছে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার এস এম মাহফুজুর রহমান বলেন, জ্ঞানের আলো পাঠাগার খুবই স্বচ্ছতার সাথে প্রায়ই এ ধরণের মানবিক কাজগুলো করে থাকে। আমি এ ধরণের মানবিক কাজ করার জন্য জ্ঞানের আলো পাঠাগারকে ধন্যবাদ জানাই।