বারান্দায় খাবার খাওয়া কিশোরীকে তুলে নিয়ে বাগানে ফেলে গণধর্ষণ!

১২:২০ পূর্বাহ্ণ | রবিবার, ফেব্রুয়ারি ১০, ২০১৯ আলোচিত

সময়ের কন্ঠস্বর, ঝিনাইদহ :: ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে বাকপ্রতিবন্ধি কিশোরীকে গণধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। গত বুধবার রাতে কালীগঞ্জের ত্রিলোচনপুর ইউনিয়নে এই ঘটনা ঘটে।

ঘটনার দু’দিন পর শনিবার দুপুরে পুলিশ অভিযুক্ত চারজনকে আটক করেছে। বিকালেই ঝিনাইদহের পুলিশ সুপার হাসানুজ্জামান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

আটক চারজন হলেন-বালিয়াডাঙ্গা গ্রামের সেলিম পাটয়ারী, বানুড়িয়া গ্রামের সাঈদ হোসন, রাকিব হোসেন এবং আশিক।

ঘটনার রাতের বর্ণনা দিয়ে প্রতিবেশি দুই নারী জানান, সেদিন রাতে তারা ওই কিশোরীদের বাড়িতে টেলিভিশন দেখছিলেন। এসময় ওই কিশোরী ঘরের বারান্দায় বসে খাবার খাচ্ছিল। কিছুক্ষণ পরে তাকে বাড়িতে দেখতে না পেয়ে খোঁজাখুঁজি শুরু হয়। ঘণ্টাখানেক পরে বাড়ির পাশের একটি বাগানে তাকে পড়ে থাকতে দেখে উদ্ধার করে বাড়িতে আনা হয়। এসময় তার শরীরে কোনো পোশাক ছিল না।

নির্যাতিত কিশোরীর বাবা বলেন, ‘ঘটনার পর থেকে ধর্ষণকারীরা আমাকে এবং আমার পরিবারকে হুমকি ধামকি দিয়ে আসছিল ঘটনাটি কাউকে না বলার জন্য। শুক্রবার রাতে সাঈদ নামের এই ছেলেটি আমাকে আবারো ফোনে মেরে ফেলার হুমকি দেয়। এরপর আমি স্থানীয় জনপ্রতিনিধির মাধ্যমে কালীগঞ্জ পুলিশকে বিষয়টি জানাই।’

কালীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইউনুচ আলী জানান, ঘটনার সঙ্গে জড়িত চারজনকে আটক করা হয়েছে। এরপর সংবাদ পেয়ে পুলিশ সুপার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। নির্যাতিত কিশোরীকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।