ঝড়ের গতিতে ইউটিউবে সাবস্ক্রাইবার হারাচ্ছেন সালমান মুক্তাদির

Imae098

বিনোদন ডেস্ক- সালমান মুক্তাদিরকে বলা হয় এ সময়ের সফল ইউটিউবার, মডেল ও অভিনেতা। তাকে নিয়ে আলোচনার পাশাপাশি সমালোচনারও শেষ নেই। এর কারণ তার বেপরোয়া চলাফেরা ও কথাবার্তা। বর্তমানে সমালোচনার স্রোতেই ভাসছেন এই ইউটিউবার। আর সমালোচনার কারণ তার বিরুদ্ধে অশ্লীলতার অভিযোগ।

এ কারণে প্রতি সেকেন্ডে কমে যাচ্ছে সালমান মুক্তাদিরের ইউটিউব চ্যানেল সালমান দ্যা ব্রাউনফিস চ্যানেলের সাবস্ক্রাইবার সংখ্যা। চ্যানেলটিতে যেন আনসাবস্ক্রাইব করার ঝড় বইছে। সাবস্ক্রাইবারদের আনসাবস্ক্রাইব করার সেই ভিডিওগুলোও এখন ভাইরালা সামাজিক যোগাযোগা মাধ্যমে।

এই আনসাবস্ক্রাইবের ঘটনার মূল সূত্রপাত হয় তার ইউটিউব চ্যানেলে ‘অভদ্র প্রেম’ টাইটেলে একটি ভিডিও টিজার প্রকাশ করার পর থেকে। ভিডিওটি প্রকাশের পর থেকেই সমালোচনা শুরু হয় সালমান মুক্তাদিরকে নিয়ে। পরে এ সমালোচনার পালে হাওয়া দেয় আরেক ইউটিউবার তাহসিন এন রাকিব (তাহসিনেশন)র রোস্ট করা ভিডিও।

গত ৭ ফেব্রুয়ারী তাহসিনেশন তার ফেসবুক পেইজে সালমান মুক্তাদির ও তার নতুন ভিডিও নিয়ে একটি পোস্ট করেন। সেখানে এ ইউটিউবার জানান, তার সে পোস্টে ৫ লক্ষ কমেন্ট হলে এটি নিয়ে রোস্টিং ভিডিও করার কথা বলেন। কিন্তু মাত্র ৮ ঘণ্টায় ৫ লক্ষের বেশি কমেন্ট করে সবাই রোস্ট করে ভিডিও বানাতে উৎসাহ দেন। পরে তাই শুক্রবার রাতে তাহসিনেশন ইউটিউব চ্যানেলে একটি রোস্টিং ভিডিও প্রকাশ করা হয়।

রোস্টিং ভিডিও তে তাহসিন এন রাকিব ভিউয়ারদেরকে সালমান দ্যা ব্রাউনফিস চ্যানেলে আনসাবস্ক্রাইব করার কথা বলেন। ভিডিওটি আপলোড করার রাতেই সালমান মুক্তাদিরের চ্যানেল থেকে প্রায় ৫০ হাজার আনস্ক্রাইব করে যান। আর এ প্রতিবেদনটি লেখা পর্যন্ত চার দিনে প্রায় ২ লাখ মানুষ আনস্ক্রাইব করেন।

এদিকে সালমান মুক্তাদিরের ইউটিউব চ্যানেলে যখন আনসাবস্ক্রাইব করার ঝড় বইছে ঠিক তখনই ‘অভদ্র প্রেম’ গানের মিউজিক ভিডিও প্রকাশ করেন তিনি। শনিবার রাতে গানটি তার ‘সালমান দ্য ব্রাউন ফিশ’ ইউটিউব চ্যানেলে মুক্তি পায়।

গানটি মুক্তি পাওয়ার পর থেকে বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়া ও ইন্টারনেটে চলছে তীব্র সমালোচনা। গানটির চিত্রায়নকে “অশ্লীল” আখ্যা দিয়ে তর্ক-বিতর্কও চলছে মিডিয়াজুড়ে।

এই রিপোর্টটি লেখার আগ পর্যন্ত ‘অভদ্র প্রেম’ গানটি ইউটিউবে দেখেছে ছয় লাখ ৬০ হাজারের উপরে ইউটিউব ভিউয়ার। তবে গানটি যে দর্শকদের মনে ধরেনি তা বোঝা যায় সেটিতে পড়া লাইক-ডিসলাইকের সংখ্যা দেখে।

ইউটিউবে গানটি লাইক দিয়েছেন ২৫ হাজার জন। বিপরীতে ডিসলাইক পড়েছে ১ লাখ ২৭ হাজার, যা লাইকের পাঁচ গুণেরও বেশি। তবে শুধু ডিসলাইকই নয়, গানটি প্রকাশের পর থেকে ‘সালমান দ্য ব্রাউন ফিশ’ চ্যানেলে সাবস্ক্রাইবারের সংখ্যা আরও কমেছে।

Sharing is.

Share on facebook
Share with others
Share on google
Share On Google+
Share on twitter
Share On Twitter
  • You May Also Like:
  • Top Views