মরণব্যাধী ক্যান্সার চিকিৎসায় নতুন প্রযুক্তি!

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি: মরণব্যাধী ক্যান্সারের সেবায় বিশেষায়িত চিকিৎসায় কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা ভিত্তিক প্রযুক্তির পরিচয় করিয়েছে ভারতের স্বনামধন্য চিকিৎসা কেন্দ্র অ্যাপোলো হাসাপাতাল মুম্বাই। এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে দক্ষিণ পূর্ব এশিয়া অঞ্চলে ‘প্রটোন’ থেরাপি প্রচলনের মাধ্যমে নিজেদেরকে ‘ক্যান্সার চিকিৎসায় প্রযুক্তি ব্যবহারে নিজেদের ‘পথিকৃৎ’ হিসেবে দাবি করছে অ্যাপোলো হাসপাতাল মুম্বাই কর্তৃপক্ষ।

অ্যাপোলো হাসপাতাল মুম্বাই কর্তৃপক্ষ বলছে, সাম্প্রতিক সময়ে ক্যান্সার চিকিৎসায় সাড়া জাগানো বেশ কিছু প্রযুক্তির মধ্যে রয়েছে- দ্য ভিঞ্চি রোবোটিক সার্জারি, ট্রুবিম এসটিএক্স, ব্রেচি থেরাপি, চিত্র ভিত্তিক বিকিরণ সেবা, এসআরএস এবং এসবিআরটি। প্রযুক্তিগত সক্ষমতার পাশাপাশি মুম্বাইয়ের অ্যাপোলো হাসপাতালে রয়েছে একদল দক্ষ অনকোলজিস্ট।

ক্যান্সার বিষয়ক বিজ্ঞান অনকোলজিখাতে প্রযুক্তিগত উদ্ভাবনের ফলে স্বল্পসময়ে রোগ নির্ণয় এবং চিকিৎসার ফলাফলকে উন্নত করেছে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। আন্তর্জাতিক চিকিৎসার মান প্রতিষ্ঠান জয়েন্ট কমিশন ইন্টারন্যাশনালের (জেসিআই)-এর স্বীকৃতিপ্রাপ্ত মুম্বাইয়ের অ্যাপোলো হাসপাতাল পূর্ব ভারতের একটি অন্যতম ক্যান্সার সেবা কেন্দ্র।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রতিবেদন অনুযায়ী ২০১৮ সালে বিশ্বব্যাপী ৯৬ লক্ষ মানুষের মৃত্যু হয়েছে ক্যান্সার বা কর্কট রোগে। কর্কট রোগের কারণ হিসেবে স্থুলতা, স্বল্প ডায়েট ও শরীর চর্চা এবং অধিক ধুমপান ও মদপানকে উল্লেখ করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্যখাতের প্রধান প্রতিষ্ঠান অ্যাপোলো হাসাপাতাল মুম্বাই। জাতিসংঘের সহযোগী প্রতিষ্ঠানটির হিসেবে কর্কট রোগে মৃত্যুর ৭০ শতাংশই নিম্ন এবং মধ্য অর্থনীতির দেশসমূহে।

বিশ্ব ক্যান্সার দিবস উপলক্ষে ক্যান্সার চিকিৎসায় অগ্রগতি নিয়ে মুম্বাই অ্যাপোলো হাসপাতালের জেষ্ঠ্য পরামর্শকদের অংশগ্রহণে ঢাকা এবং চট্টগ্রামে বৈজ্ঞানিক অধিবেশন অনুষ্ঠিত হয়েছে। অধিবেশনে জ্ঞান বিনিময়ে অংশ নেন অ্যাপোলো হাসাপাতাল মুম্বাইয়ের বিশিষ্ট রেডিয়েশন অনকোলজিস্ট অধ্যাপক ডা: শ্যাম শ্রিভাস্তাভা এবং সার্জিক্যাল অনকোলজিস্ট ডাক্তার সন্দীপ বিপ্তে।

ক্যান্সার চিকিৎসায় নতুন প্রযুক্তির কথা জানাতে সম্প্রতি ঢাকায় আসেন ভারতের চিকিৎসা কেন্দ্র অ্যাপোলো হাসাপাতাল মুম্বাইয়ের ডাক্তাররা।

অ্যাপোলো হাসপাতাল মুম্বাইয়ের রেডিয়েশন অনকোলজির পরিচালক অধ্যাপক শ্যাম শ্রিভাস্তাভার মতে ‘সঠিক সময়ে ক্যান্সার সনাক্ত করা গেলে সেটা অবশ্যই সারানো সম্ভব’। অধ্যাপক শ্যাম তিন দশকেরও বেশি সময় ভারতের টাটা মেমোরিয়াল হাসপাতালের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন রেডিয়েশন অনকোলজির অধ্যাপক হিসেবে।

অ্যাপোলো হাসপাতাল মুম্বাইয়ের সার্জিক্যাল অনকোলজির পরামর্শক ডা: সন্দীপ বিপ্তে যিনি প্রশিক্ষণ এবং দক্ষতা হাসিল করেন ভারতের টাটা মেমোরিয়াল হাসপাতাল থেকে। তিনি বলেন, চিকিৎসা সেবার অগ্রতগির ফলে রোগীদের কোন প্রকার দৃশ্যমান শারীরিক পরিবর্তন ছাড়াই ব্রেস্ট ক্যান্সারের চিকিৎসা এখন সম্ভব। ব্রেস্ট ক্যান্সার বিশেষজ্ঞ ডা: সন্দীপ বলছেন, মুম্বাইয়ে বাংলাদেশ থেকে প্রতি সপ্তাহ গড়ে ২-৩ জন ব্রেস্ট ক্যান্সার রোগীর চিকিৎসা করেছেন তিনি অ্যাপোলো হাসপাতাল মুম্বাইতে।

অ্যাপোলো হাসপাতাল মুম্বাইয়ের দাবি, রোগীরা কোন প্রকার অপেক্ষা ছাড়াই উচ্চমানের পরিবেশে সবচেয়ে ভালো চিকিৎসা সেবা পাচ্ছেন সাশ্রয়ী খরচে। মেডিকেল, সার্জিক্যাল, রেডিয়েশন এবং নিউক্লিয়ার মেডিসিনসহ ক্যান্সারের সকল সেবা নাভী মুম্বাইয়ের অ্যাপোলো হাসপাতালে পাওয়া যাবে টাটা মেমোরিয়াল হাসপাতালে অভিজ্ঞতা সম্পন্ন একদল দক্ষ চিকিৎসকের মাধ্যমে।

এ সম্পর্কে আরও বিস্তারিত জানা যাবে ই-মেইলে [email protected] এবং [email protected] এই ঠিকানায়।

Sharing is.

Share on facebook
Share with others
Share on google
Share On Google+
Share on twitter
Share On Twitter
  • You May Also Like:
  • Top Views