• আজ ২৯শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

ঢাকা সিটি নির্বাচনের প্রচার-প্রচারণার শেষ দিন আজ

৩:২০ অপরাহ্ণ | মঙ্গলবার, ফেব্রুয়ারি ২৬, ২০১৯ ফিচার
dk-utor-dokhin-city

রাজু আহমেদ, ষ্টাফ রিপোর্টার: আসন্ন ঢাকা সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচনী প্রচার-প্রচারণার আজই শেষ দিন। আজ মধ্যরাতেই শেষ হচ্ছে সব ধরনের নির্বাচনী প্রচারণা।

নির্বাচনী বিধি অনুযায়ী ২৬ ফেব্রুয়ারি দিবাগত মধ্যরাত ১২টা থেকে আগামী ২ মার্চ রাত ১২টা পর্যন্ত ঢাকার সকল নির্বাচনী এলাকায় যে কোনো ধরনের নির্বাচনী প্রচারণা ও সভা সমাবেশ নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। আগামী ২৮ ফেব্রুয়ারি ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশন উপনির্বাচনের ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

মঙ্গলবার মধ্যরাত থেকে নির্বাচনী এলাকায় কমিশনের অনুমোদিত স্টিকার বিহীন মোটর সাইকেল চলাচলেও নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে। ২৭ ফেব্রুয়ারি মধ্যরাত থেকে ২৮ ফেব্রুয়ারি মধ্যরাত পর্যন্ত নির্বাচনী এলাকায় যন্ত্রচালিত যানবাহন চলাচলে বিধি নিষেধ আরোপ করা হয়েছে। তবে, প্রধান সড়কে (হাইওয়ে) গাড়ি চলাচল করতে পারবে। এছাড়াও ফায়ার সার্ভিস, অ্যাম্বুলেন্স ও ডাক বিভাগের গাড়ি এই নির্দেশনার বাইরে থাকবে। ভোটের দিন নির্বাচনী এলাকায় সাধারণ ছুটি থাকবে। সকল বহিরাগতদের এলাকা ছাড়তে বিশেষ নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

ডিএনসিসি ও ডিএসসিসি নির্বাচনে ৩৬টি সাধারণ ওয়ার্ডের কাউন্সিল পদে মোট প্রার্থীর সংখ্যা ৩০৯ জন। দুই সিটিতে ১২টি সংরক্ষিত ওয়ার্ডের নারী কাউন্সিল পদে প্রার্থীর সংখ্যা ৭০ জন। এর মধ্যে ডিএনসিসির ১৮টি সাধারণ ওয়ার্ডে কাউন্সিলর প্রার্থী ১৬০ জন, সমসংখ্যাক ওয়ার্ডে ডিএসসিসিতে সাধারণ কাউন্সিলর প্রার্থী ১৪৯ জন। অন্যদিকে ডিএনসিসির ৬ সংরক্ষিত ওয়ার্ডে নারী কাউন্সিলর প্রার্থী ৪৫ জন এবং ডিএসসিসিতে ২৫ জন। কাউন্সিলর পদে দলীয় প্রতীকে নির্বাচন হচ্ছে না।

ডিএনসিসি উপ-নির্বাচনে মেয়র পদে ৪ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন এরা হলেন – আওয়ামী লীগের আতিকুল ইসলাম, প্রগতিশীল গণতান্ত্রিক দল (পিডিপি) থেকে শাহিন খান, ন্যাশনাল পিপলস পার্টির (এনপিপি) আনিসুর রহমান দেওয়ান ও স্বতন্ত্র প্রার্থী নর্থ সাউথ প্রপার্টিজ লিমিটেডের চেয়ারম্যান মোঃ আব্দুর রহিম। মেয়র পদে দলীয়ভাবে নির্বাচন হচ্ছে।

এ ব্যাপারে ইসি সচিব মোঃ হেলালুদ্দীন আহমেদ বলেন, ঢাকা উত্তর ও ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচন সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণভাবে সম্পন্ন করতে ইসির পক্ষ থেকে যা যা করা দরকার সব ব্যবস্থাই করা হয়েছে। নির্বাচনে যে কোন ধরনের সহিংসতা ও অনিয়ম বন্ধে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীকে কঠোর পদক্ষেপ নেয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

Loading...