বেলা বাড়ার সঙ্গে বাড়ছে ভোটারদের উপস্থিতি, সন্তোষ ভোটাররা

১২:১৭ অপরাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারি ২৮, ২০১৯ ফিচার

সময়ের কণ্ঠস্বর :: উৎসবমুখর পরিবেশে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র পদের উপ-নির্বাচন ও ঢাকা উত্তর-দক্ষিণ সিটির ৩৬টি ওয়ার্ডের কাউন্সিলর পদে সাধারণ নির্বাচন চলছে। সকালে গুড়ি গুড়ি বৃষ্টির কারণে ভোটার উপস্থিতি কম থাকলেও বৃষ্টি ছেড়ে যাওয়ার পর বেলা বাড়ার সাথে সাথে ভোটার উপস্থিতি বাড়তে থাকে।

বৃৃহস্পতিবার সকাল ৮টা থেকে ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে, চলবে একটানা বিকেল ৪টা পর্যন্ত।

সরেজমিনে ভোটকেন্দ্রে ঘুরে দেখা যায়, সকাল থেকে বৃষ্টি উপেক্ষা করেই অনেক ভোটার কেন্দ্রে আসতে থাকেন হবে, তবে সংখ্যায় কম। বৃষ্টি ছেড়ে যাওয়ার পর বেলা বাড়ার সাথে সাথে ভোটার উপস্থিতি বাড়তে থাকে। লাইনে দাঁড়িয়ে তারা এক এক করে ভোট দিচ্ছেন।

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের দক্ষিণ মান্ডার এমআর স্কুল কেন্দ্রের প্রিজাইডিং অফিসার প্রদীপ কুমার বসাক বলেন, বৃষ্টির কারণে সকালে ভোটার উপস্থিতি ছিল খুবই কম। বৃষ্টি ছেড়ে যাওয়ার পর ভোটার উপস্থিতি বাড়ছে, এখন উপস্থিতি অনেক ভালো। এই কেন্দ্রে মোট ভোটার সংখ্যাঢ় ১ হাজার ৮৯৩ জন।

সাতজন কাউন্সিলর প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। যে কারণে ভোটের উত্তাপটা এখানে অন্য এলাকার তুলনায় অনেকটা বেশি। কেন্দ্রের বাইরে শতশত কর্মী সমর্থকেরর পদভারে মুখরিত। বেশিরভাগের গলায় ঝুলছে পছন্দের প্রার্থীর প্লাকার্ড। অনেকে আবার মার্কা ছাপানো টি-শার্ট পরে মহড়া দিচ্ছেন।

প্রিসাইডিং অফিসার জাহাঙ্গীর আলম বার্তা২৪.কমকে বলেন, আমার কেন্দ্রে মোট ভোটার রয়েছে ২৩৪৫ জন। ভোটার উপস্থিতি খুব বেশি না হলেও একটু করে বাড়া শুরু হয়েছে। বৃষ্টি বন্ধ হয়েছে এখন মনে হয় উপস্থিতি আরও বাড়বে।

এই কেন্দ্রের বুথগুলোতে কাউন্সিলর প্রার্থীদের এজেন্টের সরব উপস্থিতি দেখা গেছে। মেয়র প্রার্থীদের এজেন্ট দেখা যায় নি।

এ কেন্দ্র সব প্রার্থীর এজেন্ট উপস্থিত রয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, প্রথম দুই ঘন্টায় প্রায় ২০ শতাংশের মতো ভোট পড়েছে। ভোট দিতে ভোটারদের কোন সমস্যা হচ্ছে না। উৎসবমুখর পরিবেশে তারা ভোট দিতে পারছেন।

ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের ৭২ নং ওয়ার্ডের দি লার্নিং ইন্টারন্যাশনাল স্কুল কেন্দ্রের প্রিজাইডিং কর্মকর্তা চৌধুরী মোশারফ হোসেন বলেন, কোন ধরনের সমস্যা হচ্ছে না শান্তিপূর্ণভাবে ভোটাররা ভোট দিতে পারছেন। ভোটারদের উপস্থিতি দেখে আমরা সন্তুষ্ট। এখানে প্রায় মোট ১ হাজার ৯৫৪ ভোটার আছে। আমরা আশা করি অধিকাংশ ভোট কাস্ট ভাবে।

দক্ষিণ মান্ডার এমআর স্কুল কেন্দ্রে ভোট দান শেষে ভোটার ছাইদুল ইসলাম বলেন, শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোট দিতে পেরে আমরা খুশি।