‘আলেমরা গর্জে উঠলে মেননরা পালাবার পথ পাবে না’

৩:০৬ অপরাহ্ণ | বুধবার, মার্চ ১৩, ২০১৯ আলোচিত

কক্সবাজার প্রতিনিধি :: হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা মুহাম্মদ আজিজুল হক ইসলামাবাদী বলেছেন, মেননরা এ দেশে বাস করলেও প্রকৃতপক্ষে ইয়াহুদী, খৃস্টান ও নাস্তিক্যবাদের এজেন্ট। মেনন সাহেব মন্ত্রীত্ব হারিয়ে উন্মাদ হয়ে গেছেন। তাই পার্লামেন্টে দাঁড়িয়ে ইসলাম, মাদরাসা শিক্ষা, আলেম ওলামা ও হেফাজত বিরোধী বক্তব্য দিয়ে ইসলাম বিদ্বেষী গোষ্ঠীর কৃপা পেতে চান।

রামু সদরে মন্ডলপাড়া ইসলামী যুব সংস্থা কর্তৃক আয়োজিত দিনব্যাপী ইসলামী মহাসম্মেলনে প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য দিতে গিয়ে এসব কথা বলেন তিনি।

তিনি বলেন, মেননদের মনে রাখা দরকার যে, আলেম সমাজ এখনো রাজপথ ছাড়েননি। একবার গর্জে উঠলে আপনারা পালাবার পথও খুঁজে পাবেন না। বাংলার মাটিতে মেননদের মত নাস্তিকদের কোন ঠাঁই হবেনা।

তিনি আরো বলেন, উপমহাদেশের ঐতিহ্যবাহী দ্বীনিধারা কওমি মাদরাসা শিক্ষাকে বিষবৃক্ষ বলা, খতমে নবুওয়ত অস্বীকারকারী কাফের কাদিয়ানীদের পক্ষে দালালী, হেফাজত ও দেশের সর্বজন শ্রদ্ধেয় শীর্ষ আলেম আমীরে হেফাজত শায়খুল ইসলাম আল্লামা শাহ আহমদ শফী ও জাতীয় কবিকে কটাক্ষ করে জাতীয় সংসদে অশোভন ভাষায় আক্রমণকারী রাশেদ খান মেননের বিরুদ্ধে আইনি, রাজনৈতিক ও সামাজিক প্রতিরোধ গড়ে তোলার আহবান জানান।

মাওলানা ইসলামাবাদী আরো বলেন, মেনন ইসলামী অনুশাসনকে মোল্লাতন্ত্র বলে ইসলামের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছেন। জাতীয় সংসদে পাশ করা কওমী শিক্ষার বিরুদ্ধে বিষোদগার করে মহান সংসদকেও অবমাননা করেছেন তিনি। শায়খুল ইসলাম আল্লামা আহমদ শফী সম্পর্কে অশালীন বক্তব্য দিয়ে ওলামা, তোলাবা ও তৌহিদী জনতার অন্তরে চরম আঘাত করেছেন। অনতিবিলম্ব তাকে প্রকাশ্যে ক্ষমা চাইতে হবে। না হলে এদেশের ইসলামী জনতা কঠোর কর্মসূচি দিতে বাধ্য হবেন।

মাওলানা ইসলামাবাদী সরকারের উদ্দেশ্যে বলেন, এ জাতীয় মুনাফেকদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা করুন। অন্যথায় দেশের আলেমসমাজ ও তৌহিদী জনতা তার ইসলাম বিদ্বেষের বিরুদ্ধে দুর্বার গণআন্দোলন গড়ে তুলতে বাধ্য হবেন।