সংবাদ শিরোনাম
নোবিপ্রবি’তে ‘বিশ্ব ডিএনএ দিবস’ পালিত! | গরমে ভোগান্তি চরমে, শুক্রবার আরও বাড়তে পারে তাপমাত্রা! | নোবিপ্রবিতে ২য় আন্তর্জাতিক ফিসারিজ শীর্ষক সিম্পোজিয়াম অনুষ্ঠিত | ‘একটি ছবি তোলার জন্য অনেক সময় জীবনের ঝুঁকি নিতে হয়’- তথ্যমন্ত্রী | আমতলীতে জমিজমার বিরোধকে কেন্দ্র করে এইচএসসি পরীক্ষার্থীকে মারধর | জন্মদিন ভুলে যাওয়ায় বাবা-মায়ের সঙ্গে অভিমান করে শিক্ষিকার আত্মহত্যা! | শপথ পড়লেন আমতলী উপজেলা পরিষদের নবনির্বাচিত জনপ্রতিনিধিরা | হবিগঞ্জ বিএনপির আহ্বায়ক কমিটি অনুমোদন | ধান ফলায় কৃষক, মুনাফা লুটে মজুতদার ও মধ্যস্বত্ত্বভোগীরা! | কক্সবাজারে বিল বকেয়া থাকার অভিযোগে কয়েকটি মসজিদে বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন |
  • আজ ১২ই বৈশাখ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

জনরোষের চাপে চেয়ারম্যান শান্ত খানকে ছেড়ে দিয়েছে বিআইডব্লিউটিএ কর্তৃপক্ষ

২:৫২ অপরাহ্ণ | বুধবার, মার্চ ২০, ২০১৯ স্পট লাইট
shanto-khan

রাজু আহমেদ, ষ্টাফ রিপোর্টার: মিরপুরে তুরাগ তীরে উচ্ছেদ অভিযান চলাকালে উচ্ছেদ অভিযানে বাধা দেয়ায় আটককৃত কাউন্দিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আতিকুল ইসলাম খান শান্তকে স্থানীয় জনরোষের চাপে ছেড়ে দিতে বাধ্য হয়েছে বিআইডব্লিউটিএ কর্তৃপক্ষ।

এ বিষয়ে কাউন্দিয়া ইউপি চেয়ারম্যান আতিকুল ইসলাম খান শান্ত সময়ের কণ্ঠস্বরকে বলেন, আজ বুধবার সকালে বড় বাজার এলাকায় তুরাগ তীরে উচ্ছেদ অভিযান পরিচালিত হচ্ছে শুনে এলাকাবাসীর অনুরোধে ঘটনাস্থলে যাই। ঘটনাস্থলে পৌছে বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত হই।

এদিকে সম্প্রতি ইউনিয়ন বাসীর চলাচলের সুবিধার্থে ৬০ লক্ষ টাকা ব্যয়ে নির্মিত মেলার টেক ঘাট থেকে মেলার টেক মহল্লা পর্যন্ত ৮০০ মিটার দৈর্ঘ্যের রাস্তাটির সংযোগস্থলে তারা ভাংচুর শুরু করে। ইউনিয়ন বাসীর পক্ষ থেকে আমি বিআইডব্লিউটিএ’র নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মোস্তাফিজুর রহমানের নিকট জানতে চাই বিনা নোটিশে এ ধরনের উচ্ছেদ অভিযান কতটা যুক্তিযোগ্য? উচ্ছেদ অভিযানে স্থানীয় জনতা আইনানুসারে আগে থেকে নোটিশ পাবে এবং তাদের প্রকৃত ক্ষতিপূরণ পাবে। এর কোনটিই না মেনে এই উচ্ছেদ অভিযান অসম্পূর্ণ বলে আমি দাবি করি।

শান্ত খান আরো বলেন, এ সময় হঠাৎ বিআইডব্লিউটিএ’র যুগ্ম পরিচালক আরিফুর রহমান আমার উপর ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠেন। তিনি নানাভাবে আমার সাথে অসামঞ্জস্যপূর্ণ আচরণ করতে থাকেন। ফলে এক পর্যায়ে তার সাথে এলাকাবাসীর বাকবিতণ্ডা শুরু হয়। এদিকে খবরটি কাউন্দিয়া ইউনিয়নসহ পুরো এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে দলে দলে জনগণ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হলে পরিস্থিতি সামাল দিতে আমি তাদেরকে নিয়ে ঘটনাস্থল থেকে চলে আসি।

এ সময় তিনি আরো বলেন, সরকারী কাজে বাধা দেওয়ার সামর্থ আমি কেন, কারো নেই। সরকারী কাজে সহযোগিতা করাও একজন ইউপি চেয়ারম্যান হিসেবে আমার দায়িত্ব। তবে উচ্ছেদের আগে ভুক্তভোগীদের নোটিশ করা উচিত ছিলো। এমনকি সরকারী কোন প্রয়োজনে কারো ব্যক্তিমালিকানা জমি অধিগ্রহণ করলে তাদেরকে ভূমি অধিগ্রহণ আইনে ক্ষতিপূরণ দেয়ার বিধান রয়েছে। এ গুলো মনে করিয়ে দেয়া যদি আমার অপরাধ হয় তাহলে আমি অপরাধী। আর যদি আমি জনগণের পক্ষে সঠিক কথা বলে থাকি, তাহলে বিআইডব্লিউটিএ’র যুগ্ম পরিচালক আরিফ সাহেব আমাকে অপমান করে যে হয়রানীমূলক আচরণ করেছেন তার গভীর নিন্দা ও তীব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছি।