মেঘনা নদীতে পুলিশের ব্লক রেইড, ২ লাখ মিটার নিষিদ্ধ কারেন্ট জাল জব্দ

৩:৪৬ অপরাহ্ণ | সোমবার, মার্চ ২৫, ২০১৯ চট্টগ্রাম

আশিক বিন রহিম, চাঁদপুর : চাঁদপুর সদর উপজেলার লক্ষ্মীপুর মডেল ইউনিয়নের বহরিয়া এলাকার মেঘনা নদীপাড়ে ব্লক রেইড দিয়েছে জেলা পুলিশ। জাটকা রক্ষা কর্মসূচির অংশ হিসেবে ২৫ মার্চ সোমবার সকাল সাড়ে ১০টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত চাঁদপুর মডেল থানা, পুরাণবাজার ফাঁড়ির পুলিশ ও জেলা মৎস্য বিভাগের ৩টি টিম যৌথভাবে এই ব্লক রেইড পরিচালনা করে।

ব্লক রেইড চলাকালে ওই এলাকার গাজী বাড়ি, মাঝি বাড়ি ও রাঢ়ি বাড়ি থেকে প্রায় ২ লাখ মিটার নিষিদ্ধ কারেন্ট জাল জব্দ করা হয়। যার অনুমানিক মূল্য প্রায় ৪ লাখ টাকা। তবে অভিযান চলাকালে কাউকে আটক করা যায়নি। অভিযানের নেতৃত্ব দেন চাঁদপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মো. জাহেদ পারভেজ চৌধুরী ও জেলা মৎস্য কর্মকর্তা আসাদুল বাকি।

এসময় সহকারি মৎস্য কর্মকতা মো. ফিরোজ আহমেদ মৃধা, পুরাণবাজার ফাঁড়ির পুলিশ পরিদর্শক মো. শহিদুল ইসলাম, এসআই পলাশ বড়ুয়াসহ অন্যান্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য এবং সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মো. জাহেদ পারভেজ চৌধুরী জানাান, জাটকা রক্ষায় জেলা মৎস্য বিভাগকে সহোযোগিতা করতে জেলা পুলিশ জলে এবং স্থলে অভিযান চালাচ্ছে। নিয়মিত অভিযানের অংশ হিসেবে বহরিয়া এলাকায় ব্লক রেইড চালানো হয়েছে। এভাবেই যদি সকল জেলে পাড়ায় ব্লক রেইড করে অধিকাংশ কারেন্ট জাল জব্দ করা তাহলেই নদীতে কারেন্ট জাল দিয়ে ইলিশ নিধন কমে যাবে।সমস্যার গোড়ায় হাত দেয়া দরকার যেটা এখন করছে জেলা পুলিশ।

তিনি আরও বলেন, জাটকা রক্ষার আমাদের এই অভিযান জেলেদের ভালোর জন্যেই। কারণ পোনা ইলিশ বড় হলে সেগুলো জেলে ভাইরাই ধরবেন। তাই পোনা ইলিশগুলো বড় হতে দেবার জন্য তাদের সহোযোগিতা প্রয়োজন। জেলে ভাইদের প্রতি আমার অনুরোধ আপনারা এই অভয়াশ্রম চলাকালীন সময়ে নদীতে নামবেন না। কিন্তু এর পরেও কেউ যদি সরকারের নিষেধ অমান্য করে নদীতে নামেন তবে এ ক্ষেত্রে আমরা ছাড় দিবো না।

জেলা মৎস্য কর্মকতা মো. আসাদুল বাকি বলেন, অভিযানে প্রায় ২ লাখ মিটার জাল জব্দ করা হয়েছে। যা অনুমানিক মূল্য প্রায় ৪লাখ টাকা। জেলা টাস্কফোর্সের এ অভিযান অভয়াশ্রম চলাকালিন অব্যাহত থাকবে।