সংবাদ শিরোনাম
  • আজ ২৪শে শ্রাবণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

কর্ণফুলীতে ১৭ দিন পর অপহৃত কলেজ ছাত্রী উদ্ধার, গ্রেপ্তার লম্পট-প্রতারক

৭:৪২ অপরাহ্ণ | মঙ্গলবার, এপ্রিল ২, ২০১৯ চট্টগ্রাম

জে. জাহেদ, চট্টগ্রাম ব্যুরো: চট্টগ্রাম কর্ণফুলী উপজেলায় অপহরণের ১৭ দিন পর এক কলেজ ছাত্রীকে উদ্ধার করেছে থানা পুলিশ। এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে আমজাদ হোসেন (২৫) নামের এক যুবককে গ্রেপ্তার করা হয়েছে৷

জানা যায়, এই প্রতারকের বাড়ি কর্ণফুলী উপজেলার বড় উঠান দৌলতপুর ২নং ওয়ার্ড হারুন মেম্বারের বাড়ি। ঘরে তার স্ত্রী-সন্তান রয়েছে।

পুুলিশের ভাষ্যমতে, গ্রেপ্তারকৃত আসামি একজন লম্পট-প্রতারক। যিনি প্রায় সময় নিজেকে পরিচয় দিতেন অনার্স ফাইনাল ইয়ারের ছাত্র। বাবা একজন ব্যাংকার। মুরাদপুরে তাদের নিজস্ব বিল্ডিং আছে। এসব বলে তার মূল উদ্দেশ্য থাকতো মেয়েদের পটিয়ে অপহরণ করে নিয়ে যাওয়া।

কর্ণফুলী থানার পুলিশের ভাষ্য ও এজাহার সুত্রে জানা যায়, গত ১৬ মার্চ সকাল ৯টা ১৫ মিনিটে আনোয়ারা সরকারি ডিগ্রী কলেজের ছাত্রী রুপা (ছদ্মনাম) এইচএসসি পরীক্ষার প্রবেশপত্র সংগ্রহের জন্য যাওয়ার পথে ফাজিলখাঁন হাটের দক্ষিণ পার্শ্বের পিএবি সড়ক হতে অপহৃত হন। পরে বিভিন্ন স্থানে খোঁজ করেও তার সন্ধান পায়নি পরিবার। এ ঘটনায় ওই ছাত্রীর মা শাহানা আক্তার অপহরণের অভিযোগে আমজাদ হোসেন (২৫) পিতা হারুন মেম্বার দৌলতপুর নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাতনামা আরো ২/৩ জনকে আসামি করে কর্ণফুলী থানায় মামলা করেন।

অপহৃত ছাত্রীর মুঠোফোন বন্ধ থাকলেও পরে প্রযুক্তির সহায়তায় কর্ণফুলী থানা পুলিশ পতেঙ্গা খেজুরতলা এলাকা হতে গত রাত ১টার সময় অপহৃত ওই ছাত্রীকে উদ্ধার করে এবং আসামীকে গ্রেপ্তার করেছেন বলে জানান অভিযান পরিচালনাকারী পুলিশ কর্মকর্তা মনিরুল ইসলাম।

এ বিষয়ে কর্ণফুলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ আলমগীর মাহমুদ জানান, কলেজ ছাত্রী তার ৬ নং প্রতারণার শিকার। ইতোপূর্বে কেউ তার বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ কিংবা মামলা করেননি। স্থানীয় শালিশ বিচার জরিমানার মধ্যে সীমাবদ্ধ ছিল তার এসব প্রতারণার কুকীর্তি। অবশেষে তিনি গ্রেফতার হলেন কর্ণফুলী পুলিশের হাতে এবং উদ্ধার করা হয়েছে এইচএসসি পরীক্ষার্থী ভিকটিমকে।

Skip to toolbar