সংবাদ শিরোনাম
নরসিংদীতে প্রথমবারের মতো সর্বাধুনিক কার ওয়াশ ও সার্ভিসিং সেন্টার উদ্বোধন | রাজধানীতে ছিনতাইয়ের প্রস্তুতিকালে ‘ফইন্নি গ্রুপের’ ৬ সদস্য আটক | এবার চমেক চিকিৎসকদের জন্য ‘নোবেল’ চাইলেন মেয়র নাছির | তানোরে অবৈধ এসটিসি ব্যাংক সিলগালা | ফাঁড়িতে আসামির মৃত্যু: পুলিশ-এলাকাবাসীর সংঘর্ষে আহত ৩৩, পাঁচ পুলিশ প্রত্যাহার | লালমনিরহাটে সহকারী পরিচালকের বেত্রাঘাতে স্কুলছাত্রী অজ্ঞান | সাগরে মৎস আহরণে নিষেধাজ্ঞা, ফিশারিঘাট হারিয়েছে চিরাচরিত রুপ | ‘আবরার পানি খাইতে চাইলে পানি দেওয়া হয় নাই’ | নান্দাইলে নিষিদ্ধ পলিথিন ব্যাগ রাখায় ৫০ হাজার টাকা জরিমানা | মাগরিবের আজানের ২০ মিনিটের মধ্যে ছাত্রীদের হলে ঢোকার নির্দেশ! |
  • আজ ২রা কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

কর্ণফুলী থানায় বদলির হিড়িকে নতুনেরা বিপাকে!

৪:০৭ অপরাহ্ণ | শুক্রবার, এপ্রিল ১৯, ২০১৯ চট্টগ্রাম

জে.জাহেদ, চট্টগ্রাম ব্যুরো: চট্টগ্রাম শহরের প্রবেশদ্বার কর্ণফুলী থানা সিএমপির অধীনে আইন শৃঙ্খলার কার্যক্রম পরিচালিত হয়। সম্প্রতি এ থানায় ঘন ঘন উপ-পুলিশ পরিদর্শক (এসআই) ও সহকারি উপ-পুলিশ পরিদর্শক (এএসআই) বদলির ঘটনা ঘটছে। যদিও সরকারি চাকরিজীবীদের মধ্যে পুলিশ বিভাগ অনেকটা ব্যতিক্রম। এখানে পুলিশের বদলি নিত্যনৈমিত্তিক ব্যাপার।

একই সময়ে অনেকের বদলি ফলে স্থানীয় পুলিশ প্রশাসনে অস্থিরতা বিরাজ করছে। জানা যায়, পুরাতন অফিসারেরা বদলি হতে মরিয়া আবার অনেকে দীর্ঘদিন আগে বদলির আদেশ হলেও যাচ্ছে ধীর গতিতে। অনেকের আবার রুটিন-মাফিক কাজকর্মে ব্যাঘাত ঘটছে। অতীতে এ রকম ঘটনা না ঘটলেও বর্তমানে উপরি প্রশাসন যন্ত্রের ইচ্ছায় সম্প্রতি এমনটা ঘটছে বলে ধারণা পাওয়া যাচ্ছে।

এদিকে তড়িঘড়ি করে একে একে ৮/৯জন অফিসারের বদলি নিয়ে স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতাদের মাঝেও মিশ্র প্রতিক্রিয়া লক্ষ্য করা গেছে। সাথে জনপ্রতিনিধিরাও মৃদুভাবে বিপাকে পড়েছে। কেন না তাঁদেরও নানান কাজে থানায় যেতে হয়। প্রতিদিন কর্ণফুলী থানায় কেউ না কেউ বদলি হচ্ছে আর আসছে ফলে পরিচিত মুখ চলে যাচ্ছে নতুর মুখ যোগ হচ্ছে।

অপরদিকে সম্প্রতি কর্ণফুলী উপজেলার শিকলবাহা, চরপাথরঘাটা, ইছানগর, জুলধা ডাঙ্গারচর, বড়উঠান ও খোয়াজনগরে এলাকার র্সোসদের বিরুদ্ধে মাদক সেবন ও বিক্রির অভিযোগ উঠেছে। এসব সোর্স শুধু পুলিশের নয় এর মধ্যে আবগারি, কোস্টগার্ড, ডিবি ও র‌্যাবসহ নানা আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর গোপন সদস্যরা মাদক কেনাবেচায় জড়িত বলে প্রচার রয়েছে এলাকায়। আগামী তরুণ প্রজম্মকে বাঁচাতে এসব মাদক নিয়ন্ত্রণ করতে থানা পুলিশের সর্তক নজর প্রত্যাশা করছে স্থানীয় জনগণেরা।

জানা যায়, কর্ণফুলী থানায় পুলিশের চাকুরি অনেকটা নিরাপদ ও ‘লাভজনক’। কথিত রয়েছে, পুলিশ অফিসারদের এখানে যোগদান করতে হলে অনেক তদবির করতে হয় কিন্তু সম্প্রতি সময়ে থানায় এসে অফিসাররা পুরা উপজেলার মুখ দেখার আগেই বিদায় নিতে হচ্ছে।

এ অবস্থায় ভালো কোন সাব ইন্সপেক্টর কর্ণফুলী থানায় যোগদান করতে রীতিমতো অনীহা প্রকাশ করছে বলে একাধিক সূত্রে জানা গেছে। কেননা নিজস্ব থানা কম্পাউন্ট না থাকায় আবাসন সমস্যাটা প্রকট। ব্যারাকে থাকা খাওয়ার সমস্যার পাশাপাশি অনেকে কাজ করার জন্য বসার টেবিলও পান না। সে সাথে মহিলা কন্সটেবলদের অবস্থা আরো শোচনীয়। আবার কেউ এলেও কম সময়ের মধ্যে অভ্যন্তরীণ বদলি নিয়ে অন্যত্র চলে যাচ্ছেন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক দু’একজন অফিসার এ প্রতিবেদকের সাথে বিপরীত মন্তব্যও করেন, কর্ণফুলী থানায় চাকুরিতে নিজস্বতা বজায় রাখা যায়না। এখানে ইনকাম করাতো দূরে থাক। এ অবস্থায় এখানে চাকুরি করা অনেকটা দূরূহ বলে জানান তাঁরা।

বিশ্বস্ত সূত্রমতে, ফেব্রুয়ারী ও মার্চ এর শুরু ও এপ্রিলের শেষ হতেই একজন ওসি তদন্ত ও ৮/৯ জন এসআই সিএমপি কমিশনারের আদেশে বদলি হয়েছেন। যারা এখনো অনেকে বেডিংপত্রও নিতে পারেনি। কেহ চলে গেছে আবার কেহ দায়িত্ব বুঝিয়ে দিয়ে চলে যাওয়ার পথে রয়েছেন।

পুলিশের অভ্যন্তরীণ এ বদলির তালিকায় রয়েছেন, পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মো. হাসান ইমাম, উপ-পুলিশ পরিদর্শক (এসআই) মোহাম্মদ হোসাইন, এসআই মো. নাজিম উদ্দীন ভুঁইয়া, মো. ফারুক হোসেন, এসআই মো. আলতাফ হোসেন, এসআই ফজলে রাব্বি কায়সার (যাওয়ার পথে), এসআই নুরুল ইসলাম, এসআই মো. হাবিবুর রহমান, এএসআই ফারুক হোসেন, এএসআই জুবায়ের হোসেন, এএসআই মো.আব্দুল মালেক, এএসআই প্রমিলা বড়–য়া, এএসআই আশুতোষ চন্দ্র সরকার, এএসআই মো. ইসমাইল, মো. মইনুল ইসলাম সহ প্রমূখ।

এর ৪/৫ আগে এসআই রুপন, এসআই বশর, এসআই বেলাল, এসআই সমীর, এসআই মতিন, এসআই জাহিদ বদলি হন। এর মধ্যে কর্ণফুলী থানায় নতুন যোগদান করেছেন এসআই আওরঙ্গ দেব। যিনি পুর্বে সদরঘাট থানায় কর্মরত ছিলেন।

থানা সুত্রে জানা যায়, এদের অনেকে এখনো শিক্ষানবীশ পিএসআই, এসআই। যদিও অফিসার ইনচার্জ হিসেবে এখানে থানার ব্যক্তিগত কোন চয়েজ থাকে না। বদলি প্রক্রিয়া অন্যান্য সরকারি কর্মকর্তা কর্মচারীদের মতো স্বাভাবিক একটি রদবদল নিয়ম।

জানতে চাইলে সিএমপি বন্দর জোনের উপ-পুলিশ কমিশনার (ডিসি) মো. হামিদুল আলম বলেন, ‘উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে নিয়োগ-বদলির ঘটনা নিয়মিত ঘটে থাকে। এর মধ্যে বেশ কয়েকজন অফিসার চলে গেছে সেটা সত্য। তবে দ্রুত নতুন অফিসার কর্ণফুলী থানায় দেওয়া হবে।’

যদিও ইতিমধ্যে চট্টগ্রাম মেট্টোপলিটন পুলিশ কমিশনার মো. মাহাবুবর রহমান বিপিএম,পিপিএম এবং বন্দর জোনের উপ-পুলিশ কমিশনার ডিসি’র দিকনির্দেশনায় ৭মাস আগে কর্ণফুলী থানায় যোগদান করা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আলমগীর মাহমুদ উপজেলার গুরুত্বপূর্ণ এলাকায় সিসিটিভি ক্যামেরা স্থাপন, মাদক নিয়ন্ত্রণে প্রতিটি ওয়ার্ডে বিট পুলিশ ও কমিউনিটি পুলিশিং সভা সেমিনার, নগরীর প্রবেশদ্বার আখতারুজ্জামান চত্বরের সৌন্দর্য্যবর্ধনে উচ্ছেদ অভিযান বেশ প্রশংসা কুড়িয়েছে। পাশাপাশি মাদক নিয়ন্ত্রণে ও সাজাপ্রাপ্ত আসামী গ্রেফতারে ওসির নেতৃত্বে স্পোশাল টিমের এসআই মো. মনিরুল ইসলাম ও শিকলবাহার পুলিশ ফাঁড়ি ইনচার্জ (এসআই) সিদ্দিকুর রহমান, শাহমীরপুর ফাঁড়ি ইনচার্জ এসআই সুজন বড়–য়া বেশ প্রসংশনীয় ভূমিকা রেখে চলেছেন। এমনকি সাধারণ জনগণের মাঝে পুলিশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করেছেন।