সংবাদ শিরোনাম
চাঁদপুরে বাংলাদেশ অর্থনীতি সমিতির ২০১৯-২০ অর্থবছরের বিকল্প বাজেট প্রস্তাবনা | ঈদ উপলক্ষে কক্সবাজারে পর্যটকদের সর্বোচ্চ নিরাপত্তায় আগাম সতর্কবার্তা | ঈদ আনন্দ নেই কৃষকদের মনে, বাগেরহাটের মার্কেটে নেই ক্রেতা | ঈদের আগেই ‘ঈদ উপহার’ দিলাম: প্রধানমন্ত্রী | সিরাজগঞ্জে বজ্রপাতে ২ ঘুমন্ত শ্রমিকের মৃত্যু | উত্তপ্ত পশ্চিমবঙ্গ: দফায় দফায় সংঘর্ষ, বিজেপি নেতা গুলিবিদ্ধ | বিমানেই উঠে পড়ছিল দুই রোহিঙ্গা নারী! | তিনগুণ বেশি দামে কাপড় বিক্রি করছে ‘মিমি সুপার মার্কেট’, লাখ টাকা জরিমানা | সেতু, ফ্লাইওভার, আন্ডারপাস উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী | বসল পদ্মাসেতুর ১৩তম স্প্যান, দৃশ্যমান ২ কিমি |
  • আজ ১১ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

মির্জা ফখরুলের নিজ জেলা থেকে এমপি হিসেবে শপথ নিলেন জাহিদুর!

১:১৬ অপরাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, এপ্রিল ২৫, ২০১৯ আলোচিত বাংলাদেশ

সময়ের কণ্ঠস্বর, ঢাকা :: একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিজয়ী বিএনপির ছয় প্রার্থীর শপথ নেয়ার বিষয়ে দলীয় কোনো সিদ্ধান্ত না এলেও শপথ নিয়েছেন ঠাকুরগাঁও-৩ আসন থেকে নির্বাচিত বিএনপির প্রার্থী জাহিদুর রহমান জাহিদ। এর ফলে, বিএনপির প্রথম সাংসদ হিসেবে শপথ নিলেন তিনি।

বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১টায় দিকে জাহিদুর শপথগ্রহণের আনুষ্ঠানিকতা শুরু হয়। বেলা সোয়া ১২টায় স্পিকারের সংসদ কার্যালয়ে এ শপথ অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়। এ সময়, তাঁকে শপথ বাক্য পাঠ করান স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী। এর আগে বৃহস্পতিবার সকালে জাহিদুর রহমান শপথ নেয়ার বিষয়ে তার আগ্রহের কথা জানিয়ে স্পিকার শিরীর শারমিন চৌধুরীকে চিঠি দেন।

জাহিদের অনুরোধেই শপথের এ আয়োজন করা হয়েছে বলে সংসদ সচিবালয়ের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ঠাকুরগাঁও-৩ আসনে (পীরগঞ্জ–রানীশংকৈল) তিন সাবেক সাংসদকে হারিয়ে বিএনপির প্রার্থী জাহিদুর রহমান নির্বাচিত হন। রংপুর বিভাগের মধ্যে জাহিদুর রহমানই একমাত্র বিএনপির প্রার্থী, যিনি জয়ী হতে পেরেছেন। নির্বাচনে তিনি ৮৮ হাজার ৬১৯ ভোট পান। আর, মোটরগাড়ি প্রতীক নিয়ে তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী ইমদাদুল হক পান ৮৪ হাজার ৪২৭ ভোট। বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের নিজ জেলাও ঠাকুরগাঁও।

প্রসঙ্গত, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপির মাত্র ছয় প্রার্থী বিজয়ী হয়েছিলেন। একাদশ জাতীয় সংসদ যাত্রা শুরু করলেও দলীয় সিদ্ধান্ত অনুযায়ী এই ছয় জনের কেউই শপথ নেননি। নির্বাচনে কারচুপির অভিযোগ এনে ফল বর্জন এবং শপথ না নেওয়ার যে সিদ্ধান্ত নিয়েছিল বিএনপি, তা এখনো বহাল আছে। দলীয় সেই সিদ্ধান্ত অমান্য করেই সংসদ সদস্য হিসেবে শপথ নিলেন জাহিদুর রহমান।

নিয়ম অনুযায়ী, সংসদের প্রথম বৈঠক থেকে পরবর্তী ৯০ দিনের মধ্যে নির্বাচিত সংসদ সদস্যদের শপথ নেওয়ার বাধ্যবাধকতা রয়েছে। সেই হিসাবে ৩০ এপ্রিলের মধ্যে শপথ নিতে হবে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপি থেকে বিজয়ী প্রার্থীদের। সুনির্দিষ্ট কারণ দেখিয়ে স্পিকারকে চিঠি না দিলে ৩০ এপ্রিলের পর তাদের আসন শূন্য হয়ে যাবে। পরবর্তী ৯০ দিনের মধ্যে এসব শূন্য আসনে অনুষ্ঠিত হবে উপনির্বাচন।

এদিকে বিএনপির এক নীতিনির্ধারক জানান, দলীয় সিদ্ধান্তের বাইরে গিয়ে দু’জন এমপি শপথ নিতে পারেন আমাদের কাছে এমন তথ্য রয়েছে। এদের মধ্যে একজন এবারই প্রথম নির্বাচিত হয়েছেন। আরেকজন সাবেক প্রতিমন্ত্রী।