ভ্যাট বৃদ্ধি করায়, বুড়িমারী স্থলবন্দর দিয়ে পাথর আমদানি বন্ধ

১০:০৫ অপরাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, এপ্রিল ২৫, ২০১৯ রংপুর
dinajpur

মোঃ ইউনুস আলী, লালমনিরহাট প্রতিনিধি: পাথর আমদানিতে টন প্রতি ২ ডলার এসেসমেন্ট ভ্যালু ভ্যাট বৃদ্ধি করায় লালমনিরহাটের বুড়িমারী স্থলবন্দর দিয়ে সকল ধরণের পাথর আমদানি বন্ধ করেচ দিয়েছে কাস্টমস ক্লিয়ারিং এন্ড ফরোয়ার্ডিং (সিএন্ডএফ অ্যাজেন্ট) ব্যবসায়ীরা। ফলে পুরো বুড়িমারী বন্দর জুড়ে বিরাজ করছে অচলাবস্থা।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, ভারত থেকে পাথর আমদানিতে টন প্রতি১০ ডলারের পরিবর্তে রংপুর কাস্টমস্ কমিশনারেটের এক মৌখিক নির্দেশে ১২ ডলার নির্ধারণ করায় বুড়িমারী স্থল বন্দরের ব্যবসায়ীরা অতিরিক্ত দুই ডলার বৃদ্ধির নির্দেশ প্রত্যাহারের দাবীতে গত দুই দিন ধরে ধর্মঘটের ডাক দেয়। দেশের তৃতীয় বৃহত্তম বুড়িমারী স্থলবন্দরে ভারত, ভূটান থেকে পাথর ছাড়া স্বল্প পরিসরে অন্যান্য পণ্য আমদানি- রপ্তানি হলেও বৃহত্তর কর্মযজ্ঞ বন্ধ হয়ে রয়েছে পাথর আমদানি না হওয়ায়।

বুড়িমারী স্থলবন্দর আমদানি- রফতানিকারক অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক ও বুড়িমারী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবু সাঈদ নেওয়াজ নিশাত বলেন, ‘পাথর আমদানিতে টন প্রতি ১০ ডলারের পরিবর্তে ১২ ডলার এসেসমেন্ট ভ্যালু ভ্যাট বৃদ্ধি করায় বুড়িমারী স্থলবন্দর দিয়ে সকল ধরণের পাথর আমদানি বন্ধ করা হয়েছে। পাশাপাশি ভূটানের পাথরের দাম বৃদ্ধির কারণেও পাথর আমদানি বন্ধ রয়েছে। একইভাবে বাংলাবান্ধা, সোনাহাট স্থলবন্দর দিয়ে এসেসমেন্ট ভ্যালু ভ্যাট বৃদ্ধির কারণে স্থলবন্দর আমদানি- রফতানিকারক অ্যাসোসিয়েশনের ব্যবসায়ীরা পাথর আমদানি বন্ধ রেখেছে। আমরা অবিলম্বে প্রতিটনে এসেসমেন্ট ভ্যালু ভ্যাট অতিরিক্ত দুই ডলার বৃদ্ধির নিদের্শ প্রত্যাহারের দাবী জানাচ্ছি।’

রংপুর কাস্টমস্ কমিশনারেট আহসানুল হক ও বুড়িমারী সহকারি কমিশনার (এসি) বেলাল হোসেনের সাথে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও কথা বলা সম্ভব হয়নি।