দুই নাতির গলায় ছুরি ধরে পুত্রবধূকে তিন বছর ধরে ধর্ষণ করে শ্বশুর!

১:৩৬ পূর্বাহ্ণ | রবিবার, মে ৫, ২০১৯ আন্তর্জাতিক

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :: খুনের হুমকি দিয়ে পুত্রবধূকে ৩ বছর ধরে লাগাতার ধর্ষণের অভিযোগ উঠল শ্বশুরের বিরুদ্ধে। ভারতের পাঁশকুড়ার মোহাম্মদপুর গ্রামের এই ঘটনায় শ্বশুরের ফাঁসি চেয়ে ধর্ষণের নালিশ পুলিশে জানিয়েছেন নির্যাতিতা বধূ। সেই থেকেই পলাতক নরাধম শ্বশুর শেখ আব্দুল মান্নান (৬০)। তার খোঁজে তল্লাশি শুরু হয়েছে বলে জানিয়েছেন পাঁশকুড়া থানার ওসি অজিত কুমার ঝাঁ। রুজু হয়েছে ধর্ষণের মামলাও।

ইতিমধ্যে মেডিক্যাল পরীক্ষা করা হয়েছে নির্যাতিতার। কাঠের কাজে ভিনরাজ্যে থাকেন বধূর স্বামী। নাবালক দুই ছেলেকে নিয়ে শ্বশুর-শাশুড়ির সঙ্গেই থাকতেন পুত্রবধূ। অভিযোগ, শাশুড়ি কোনও কাজে ফাঁকায় বেরিয়ে যাওয়ার ফাঁকেই বধূর ওপর পাশবিক অত্যাচার চালাত আব্দুল। আর এই অত্যাচার চলত বধূর দুই নাবালক ছেলের সামনেই। ঘটনার কথা যাতে বধূ কাউকে না বলতে পারেন সে জন্য তাঁর দুই নাবালক ছেলেকে গলায় ছুরি বসিয়ে খুনের হুমকি দেওয়া হত বলে অভিযোগ। যে কারণে টানা ৩ বছর শ্বশুরের অত্যাচার মুখবুজে সহ্য করছিলেন তিনি।

জানা গেছে, শ্বশুরের এই অত্যাচারের জন্য গত ২৮ এপ্রিল দুপুরে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন গৃহবধূ। কিন্তু তাঁর দুই নাবালক ছেলের চিত্‍কার শুনে তাকে উদ্ধার করেন প্রতিবেশীরা। সেই থেকেই অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন নির্যাতিতা। শনিবার সুস্থ হয়েই পুলিশে নালিশ জানাতে আসেন তিনি।

ঘটনার বিবরণে পুলিশকে নির্যাতিতা বধূ জানিয়েছেন, গত ২৮ এপ্রিল দুপুরে তাঁর শ্বশুর-শাশুড়ি চাষের কাজে মাঠে ছিলেন। সেই ফাঁকে অভিযুক্ত আব্দুল তার স্ত্রীকে মাঠে রেখেই বাড়ি ফিরে আসে। আর দুই নাবালক ছেলের সামনেই আত্যাচার চালায়।

তিনি বলেন, স্বামী-শাশুড়ির অবর্তমানে প্রাণে মারার হুমকি দেখিয়ে দীর্ঘদিন ধরে শ্বশুর আমাকে লাগাতার ধর্ষণ করেছে। বাধা দিলে আমার দুই ছেলের গলায় ছুরি ঠেকিয়ে খুন করার হুমকি দিত। তাই কিছু করে উঠতে পারিনি। থানায় অভিযোগ জানিয়েছি। শশুরের ফাঁসি চাই।