সংবাদ শিরোনাম
  • আজ ৬ই ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

প্রথম সিটি নির্বাচনে ভোট দিচ্ছেন ময়মনসিংহের মানুষ

১০:৩১ পূর্বাহ্ণ | রবিবার, মে ৫, ২০১৯ দেশের খবর, ময়মনসিংহ

সময়ের কণ্ঠস্বর, ময়মনসিংহ- ময়মনসিংহ সিটি করপোরেশনের প্রথম নির্বাচনের ভোট গ্রহণ শুরু হয়েছে।

আজ রোববার সকাল ৮টা থেকে এই ভোট গ্রহণ শুরু হয়, চলবে বিকেল ৪টা পর্যন্ত। মেয়র প্রার্থী এরই মধ্যে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়ে যাওয়ায় ভোট হবে শুধু কাউন্সিলর প্রার্থীদের মধ্যে।

সকালে ভোটগ্রহণের শুরুতেই নগরের ভোটকেন্দ্রগুলোতে ভোটার উপস্থিতি কম দেখা গেছে। অবশ্য বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে ভোটার উপস্থিতি বাড়বে বলে আশা করছেন বিভিন্ন ভোটকেন্দ্রের প্রিজাইডিং অফিসাররা।

ইতোমধ্যেই মেয়র পদে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় আওয়ামী লীগ মনোনীত ইকরামুল হক টিটুকে নির্বাচিত ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন। এখন শুধু কাউন্সিলর পদে ভোট হচ্ছে। তাই ভোটের উত্তাপও কম বলে মনে করছেন সাধারণ মানুষ। সিটির ৩৩টি সাধারণ ওয়ার্ডে ২৪২ জন এবং ১১টি সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর পদে ৭০ প্রার্থীসহ মোট মোট ৩১২ জন প্রার্থী নির্বাচনে লড়ছেন।

ভোটের নিরাপত্তা নিশ্চিতে জুডিশিয়াল ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটসহ বিজিবি, র‌্যাব, পুলিশ, আনসার ব্যাটালিয়ন, আনসার ও গ্রাম পুলিশসহ পর্যাপ্ত আইন প্রয়োগকারী সদস্য নিয়োজিত করা হয়েছে।

এদিকে ভোটগ্রহণের ৩২ ঘণ্টা পূর্বে শুক্রবার ১২টায় প্রার্থীদের প্রচার-প্রচারণা শেষ হয়।

ইভিএম দেখভালের জন্য প্রতিটি কেন্দ্রে দুজন সেনা সদস্য ও একজন এক্সপার্টসহ মোট তিনজন এক্সপার্ট নিয়োজিত থাকার জানিয়েছে নির্বাচন কমিশন।

ইভিএম এ কোনো রকম সমস্যা দেখা দিলে তাৎক্ষণিক সমাধান দেয়ার ব্যবস্থা রয়েছে বলে জানান সিটি করপোরেশন নির্বাচনের রির্টানিং কর্মকর্তা ও আঞ্চলিক নির্বাচন অফিসার আলীমুজ্জামান।

তিনি বলেন, ‘ইভিএম এমন পদ্ধতি যে একজনের ভোট আরেকজন দিতে পারবে না, যার মাধ্যমে জাল ভোট দেয়ারও কোন সুযোগ নেই। ইভিএম কার্যকরি করতে ইতোমধ্যেই কেন্দ্রে কেন্দ্রে মগ (অনুশীলন) ভোটিং করা হয়েছে।’

রিটার্নিং অফিসার ও আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা মো. আলীমুজ্জামান জানান, নির্বাচনে প্রতিটি ভোটকেন্দ্রে ১০ জন আনসার সদস্য ও ৩ জন করে পুলিশ সদস্য থাকবে। প্রতি ওয়ার্ডে একটি করে পুলিশের ৩৩টি মোবাইল টিম ও ১১টি স্ট্রাইকিং ফোর্স থাকবে। ওয়ার্ডপ্রতি একজন করে নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ও ৩ জন অতিরিক্ত নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট দায়িত্ব পালন করবেন।