৫০ কোটি পেলে মোদিকে খুন করব! ভিডিও বার্তায় বিএসএফ জওয়ান!

১১:৩৩ পূর্বাহ্ণ | মঙ্গলবার, মে ৭, ২০১৯ আন্তর্জাতিক

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :: ৫০ কোটি টাকা দেওয়া হলে তিনি ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে খুন করতে পারেন। সদ্য প্রকাশিত একটি ভিডিও ফুটেজে এই কথা বলতে শোনা গেছে ভারতেরই সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিএসএফের সাবেক জওয়ান তেজবাহাদুর যাদবকে। তেজবাহাদুর স্বীকারও করেছেন যে প্রকাশিত ভিডিও ফুটেজে তিনিই ছিলেন।

ভোটের মৌশুমে এধরনের ভিডিও প্রকাশ্যে আসার পিছনে বড়সড় ষড়যন্ত্র রয়েছে। ভিডিও প্রকাশিত হওয়ায় তেজবাহাদুরের কড়া সমালোচনা করেছে বিজেপি।

সোমবার দিল্লিতে বিজেপি সাংসদ জিভিএল নরসিমা রাও বলেন, বারাণসী কেন্দ্রের সমাজবাদী পার্টি (সপা) প্রার্থীর বক্তব্য শুনে আমরা স্তম্ভিত। সপা প্রার্থী যেভাবে ৫০ কোটি টাকার বিনিময়ে প্রধানমন্ত্রীকে খুন করার কথা বলেছেন তা ভাবা যায় না। কংগ্রেসের মতো দল এ ধরনের অসামাজিক ব্যক্তিকে সমর্থন করছে। তাদের সরকার নিয়ে কোনও উদ্বেগ নেই। বিষয়টি অত্যন্ত নিন্দনীয়। সব তদন্তকারী সংস্থার উচিত, এই বিষয়টি নিয়ে তদন্ত করা।

চলতি লোকসভা নির্বাচনে বারাণসী কেন্দ্রে মনোনয়নপত্র পেশ করেছিলেন বিএসএফ জওয়ান তেজবাহাদুর যাদব। কিন্তু কমিশন তেজবাহাদুরের মনোনয়নপত্র খারিজ করে দেয়। কমিশনের ওই সিদ্ধান্তকে চ্যালেঞ্জ করে সোমবার সুপ্রিম কোর্টে আবেদন করেন তেজবাহাদুর। সেনা জওয়ানদের দেওয়া খাবারের মান নিয়ে অভিযোগ তুলে সোশ্যাল মিডিয়ায় বিতর্কিত একটি পোস্ট করেছিলেন তেজবাহাদুর। সোশ্যাল মিডিয়ায় তেজবাহাদুরের সেই দেওয়া ছবি নিয়ে তোলপাড় হয়। ঘটনার জেরে ২০১৭-য় তেজবাহাদুরকে বাধ্যতামূলক অবসর দেয় বিএসএফ।

সপ্তদশ লোকসভা নির্বাচনে সমাজবাদী পার্টির টিকিটে তেজবাহাদুর বারাণসী কেন্দ্রে দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বিরুদ্ধে প্রার্থী হন। তেজবাহাদুর ২৪ এপ্রিল নির্দল প্রার্থী হিসাবে বারাণসী কেন্দ্রে তাঁর প্রথম মনোনয়ন পেশ করেন।

পরে ২৯ এপ্রিল তিনি সপার প্রার্থী হিসাবে দ্বিতীয়বার মনোনয়ন পেশ করেন। কমিশন তেজবাহাদুরের মনোনয়ন বাতিল করতে গিয়ে জানায়, তাঁর দেওয়া দু’টি হলফনামার মধ্যে মিল নেই। এছাড়াও ভোটে লড়তে হলে বিএসএফের কাছ থেকে ‘নো অবজেকশন সার্টিফিকেট’ দেওয়া জরুরি ছিল। কিন্তু তেজবাহাদুর সেই প্রশংসাপত্র জমা দেননি।

তিনি অভিযোগ করেন, তাঁর মনোনয়ন বাতিলের পিছনে বিজেপির চক্রান্ত রয়েছে। নো অবজেকশন’ সার্টিফিকেট জমা না দেওয়ার যে কথা বলা হচ্ছে তা ঠিক নয়। তিনি ‘এনওসি’ জমা করেছিলেন।

Loading...