সংবাদ শিরোনাম
বঙ্গবন্ধু-প্রধানমন্ত্রীর ছবি ভাঙচুর: ফাইনের পর সুব্রত গ্রেপ্তার | হাসপাতালে ডেঙ্গু রোগীদের খোঁজ-খবর নিলেন ইঞ্জিনিয়ার মোশারফ | পুরুষদের নানাভাবে নির্যাতন করছে নারীরা: হিরো আলম | রাহুল গান্ধীকে ঢুকতে দেয়া হয়নি কাশ্মীরে, বিমানবন্দর থেকেই ফেরত | রোহিঙ্গাদের নিজ দেশে প্রত্যাবর্তন করাই উত্তম: তাজুল ইসলাম | দিনে দুপুরে গুলশানের কমিউনিটি সেন্টারে ছাত্রলীগের হামলা (ভিডিও) | ৬ কোটি টাকার উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধন করলেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী | ফরিদপুরে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ১১, আহত ২৫ | বঙ্গবন্ধুর ছবি ভাংচুর: ছাত্রলীগ নেতা ফাইন গ্রেফতার | মিরপুরে ফুটপাত দখল করে চলছে রমরমা বাণিজ্য |
  • আজ ৯ই ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

চাটমোহরে ইয়াবা ট্যাবলেট ও কনডম সহ ছাত্রলীগ নেতা আটক

১২:০৫ পূর্বাহ্ণ | শুক্রবার, মে ১০, ২০১৯ রাজশাহী

পাবনা প্রতিনিধি- পাবনার চাটমোহরে ইয়াবা ট্যাবলেট ও কনডম সহ আবদুল মালেক (২৫) নামের এক ছাত্রলীগ নেতাকে আটক করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার বিকেল ৪টার দিকে উপজেলার নিমাইচড়া ইউনিয়ন পরিষদ থেকে তাকে আটক করা হয়। সে মির্জাপুর গ্রামের আবদুর রাজ্জাকের ছেলে এবং নিমাইচড়া ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক।

চাটমোহর থানা সূত্রে জানা যায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে থানা পুলিশ জানতে পারে উপজেলার নিমাইচড়া ইউনিয়ন পরিষদের একটি কক্ষে অবস্থান করে আবদুল মালেক নামের এক যুবক ইয়াবা ট্যাবলেট বিক্রি করছে। এমন সংবাদের পর সেখানে অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করা হয়। আটকের পরে তাকে তল্লাশী একটি দিয়াশলাইয়ের বক্স থেকে ৭ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট ও মেঝে থেকে দুই প্যাকেট কনডম উদ্ধার করা হয়। পরে তাকে আটক করে থানায় নিয়ে আসা হয়। এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে থানা সূত্র জানায়।

এ ব্যাপারে নিমাইচড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কামরুজ্জামান খোকন বলেন, ‘আবদুল মালেক ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক হওয়ার পর ছাত্রলীগে দু’টি ভাগে বিভক্ত হয়েছে। তার বসত ঘর ভেঙ্গে যাওয়ায় তাকে (মালেক) আমি ইউনিয়ন পরিষদে থাকতে দিয়েছিলাম। সে ষড়যন্ত্রের শিকার বলে আমার কাছে মনে হয়েছে। তবে জড়িত থাকলে আমি তার বিচার চাই।’

ইউনিয়র পরিষদে থেকে ইয়াবা ব্যবসা বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার সরকার অসীম কুমার জানান, ইউনিয়ন পরিষদ স্থানীয় সরকার মন্ত্রনালয়ের জায়গা। সেখানে বহিরাগত কারো থাকার সুযোগ নেই। চেয়ারম্যান বা সচিব আমার কাছে অনুমতি না নিয়েই আবদুল মালেক নামের ওই যুবককে ইউনিয়ন পরিষদের একটি কক্ষে থাকতে দিয়েছে। সেখানে ইয়াবা ট্যাবলেট বিক্রি হচ্ছে এমন সংবাদ পেয়ে আমি ওসিকে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য বলেছিলাম।