ঠাকুরগাঁওয়ে জনপ্রিয় হয়ে উঠছে জেলা প্রশাসনের ভর্তুকি দোকান

১০:৪৪ অপরাহ্ণ | শনিবার, মে ১১, ২০১৯ রংপুর
vortuki

কামরুল হাসান,ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধিঃ ঠাকুরগাঁওয়ে রমজান উপলক্ষে জেলা প্রশাসনের ভর্তুকি দোকান ক্রমেই জনপ্রিয় হয়ে উঠছে। প্রতিদিন সকাল ১০ টা থেকে দুপুর ২টা পযন্ত লম্বা লাইন লেগেই থাকছে। বৃহস্পতিবারও জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে ভর্তুকি দোকানে ভীড় ছিল চোখে পড়ার মত।

ক্রেতাসাধারণ ভর্তুকি দোকান থেকে স্বাভাবিকের চেয়ে কম মুল্যে পন্য কিনতে হুমড়ি খেয়ে পরছেন। প্রতিদিন খুব ভোর থেকে দীর্ঘ লাইন থাকলেও ভর্তুকি দোকান থেকে প্রতিদিন ২শ জন ব্যক্তিকে পন্য প্রদান করা হচ্ছে। ক্রেতা সাধারণ এখানে জনপ্রতি ২ কেজি সোয়াবিন তেল, ১ কেজি ছোলা বুট, ১ কেজি চিনি, ১ কেজি মসুর ডাল নিতে পারছেন। এতে দাম ধরা হচ্ছে সোয়াবিন তেল লিটার প্রতি ৭০ টাকা, মসুর ডাল ৩০ টাকা কেজি, ছোলা বুট ৪৫টাকা কেজি ও চিনি ৩৩ টাকা কেজি।

পৌর শহরের মুন্সিপাড়া মহল্লার ক্রেতা আব্দুল আওয়াল জানান, সাধারণত দোকানে এ সকল পন্য অনেক বেশী দামে কিনতে হয়। তাই ভর্তুকি দোকানে তুলনামুলক কম দামে পাওয়ায় তিনি এখানে এসেছেন। তিনি বলেন, প্রতিদিন মাত্র ২শ জন ব্যক্তিকে পন্য প্রদান করা হয়। কিন্তু তুলণামূলক অনেক বেশি পরিমান মানুষ এখানে পন্য নিতে আসছে। তাই তিনি ২শ জন বাড়িয়ে আরো বেশি সংখ্যক মানুষকে ভর্তুকির পন্য প্রদানের জন্য জেলা প্রশাসকের দৃষ্টি আকর্ষন করেন।

ঠাকুরগাঁও এনডিসি তরিকুল ইসলাম জানান, রমজান উপলক্ষে ভর্তুকি হিসেবে ৪টি পন্য জনসাধারণকে দেওয়া হচ্ছে। সরকারি ছুটির দিন ব্যাতিত প্রতিদিন সকাল ১০ টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত ২শ জন ব্যক্তিকে স্বল্প মুল্যে পন্য দেওয়া হচ্ছে। ২শ জন ব্যক্তিকে প্রদান করার কথা থাকলেও প্রতিদিন গড়ে ৪-৫শ লোক পন্য নিতে ভীড় করছেন।

উল্লেখ্য, প্রথম রমজানে জনসাধারণের সেবা প্রদানের লক্ষ্যে জেলা প্রশাসনের তত্ত¡াবধানে ভর্তুকি দোকান উদ্বোধন করা হয়। ভর্তুকি দোকান উদ্বোধন করেন জেলা প্রশাসক ড. কেএম কামরুজ্জামান সেলিম। এর পর ক্রমেই জমে উঠেছে ভর্তুকি দোকান।