পুরুষ থেকে নারী হতে চাইলেন গ্রাজুয়েট ছেলে, বাবা বাঁধা দেয়ায় আত্মহত্যা!

১:২৯ অপরাহ্ণ | সোমবার, মে ১৩, ২০১৯ চিত্র বিচিত্র

চিত্র-বিচিত্র ডেস্ক :: ভারতের চেন্নাইয়ের বিরুগামবাক্কামে অপারেশন করিয়ে পুরুষ থেকে মেয়ে হতে চেয়েছিলেন পার্থসারথী নামে ২১ বছর বয়সী এক যুবক। কিন্তু তাতে বাধা হয়ে দাঁড়ান তার পিতা। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে ওই যুবক আত্মহত্যা করেছেন।

পুলিশ বলেছে, পার্থসারথী একজন বিসিএ গ্রাজুয়েট। তিনি বেকার। অনেক দিন ধরে পিতা গজেন্দ্র তাকে চাকরি খোঁজার জন্য চাপ দিয়ে যাচ্ছিলেন। এক পর্যায়ে তার পরিবার পার্থসারথীর চলাফেরার মধ্যে পরিবর্তন লক্ষ্য করে। তিনি বন্ধুদের সঙ্গে মেলামেশা বন্ধ করে দেন। সারাক্ষণ ঘরের ভিতর বসে থাকেন। এক সময় তিনি অপারেশন করিয়ে পুরুষ থেকে নারী হওয়ার আগ্রহ প্রকাশ করেন। কিন্তু তাকে এই অনুমতি দেন নি পিতা গজেন্দ্র।

এতে হতাশ হয়ে পড়েন পার্থসারথী। ঘটনার তিন দিন আগে তিনি বাড়ি থেকে বেরিয়ে যান। আশ্রয় নেন একজন বৃদ্ধার বাড়িতে। এ অবস্থায় তার পিতা গজেন্দ্র খোঁজখবর নিয়ে দেখতে পান মানালিতে একদল হিজড়ার সঙ্গে বসবাস করছে তার ছেলে। তিনি সেখান থেকে পার্থসারথীকে বাড়ি যেতে বলেন। কিন্তু তার ডাক প্রত্যাখ্যান করেন পার্থ।

পুলিশ জানায়, শুক্রবার রাতে পার্থসারথীর সঙ্গে সাক্ষাত করেন গজেন্দ্র। তিনি ছেলেকে বলে আসেন, পরের দিন তিনি আবার আসবেন। তার এ কথায় পার্থসারথী উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েন এবং গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেন। এ ঘটনায় মানালি পুলিশ একটি মামলা করেছে। তার তদন্ত চলছে।