মানসিক অত্যাচারের মধ্যে রয়েছেন সেই আরসিবি গার্ল

১২:৩১ অপরাহ্ণ | মঙ্গলবার, মে ১৪, ২০১৯ ইন্টারনেট রঙ্গ

ইন্টারনেট রঙ্গ ডেস্ক :: সদ্য সমাপ্ত ভারতের ক্লাব ক্রিকেট টুর্ণামেন্ট আইপিএলের রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরের শেষ ম্যাচে নজর কেড়েছিলেন গ্যালারিতে বসা তরুণী। লাল রঙের অফ শোলডার টপ গায়ে সেই তরুণীর উচ্ছ্বাসে মুগ্ধ হয়েছিলেন যুবকরা। পুরুষ-হৃদয়ে ঝড় তুলেছিল তাঁর মিষ্টি লাজুক হাসি। সোশ্যাল মিডিয়ায় রাতারাতি সেনসেশন হয়ে উঠেছিলেন বঙ্গতনয়া দীপিকা ঘোষ। তখন বিষয়টা বেশ ভাল লাগলেও বর্তমানে অত্যন্ত হতাশ তিনি। প্রত্যেকটা দিন অত্যাচারের মধ্যে দিয়ে কাটছে তাঁর। চিঠি লিখে নিজেই সে কথা জানালেন তরুণী।

সানরাইজার্সের বিরুদ্ধে ঘরের মাঠে সেটাই ছিল বিরাট কোহলিদের শেষ ম্যাচ। সেদিন মাঠের থেকে চিন্নাস্বামী স্টেডিয়ামের গ্যালারিতেই বেশি নজর গিয়েছে অনেকের। মুহূর্তের মধ্যে জনপ্রিয় হয়ে ওঠে ‘RCB Girl’ দীপিকা। সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়ে তাঁর একগুচ্ছ ছবি ও ভিডিও। রাতারাতি ফলোয়ারের সংখ্যা বেড়ে ২ লক্ষ ৭০ হাজারে পৌঁছায়। শুধু তাই নয়, তার নামে একাধিক ফেক অ্যাকাউন্টও তৈরি হয়েছে।

নেটদুনিয়ায় সেনসেশন তৈরি করা প্রিয়া প্রকাশ ভারিয়েরকেও যেন ছাপিয়ে গিয়েছিলেন তিনি। কিন্তু এখন জানা যাচ্ছে বেঙ্গালুরুর বাসিন্দা বাঙালী সুন্দরী ভাল নেই। উপচে পড়া ভালবাসা পাওয়ার জন্য কৃতজ্ঞতা জানালেও তাঁর উপরে মানসিক অত্যাচার চলছে বলেই দাবি করেছেন দীপিকা।

চিঠিতে তিনি লেখেন, আমি কোনও সেলেব্রিটি নই। একজন সাধারণ মেয়ে হিসেবেই ম্যাচ দেখতে গিয়েছিলাম। এমন অদ্ভুত নজরকাড়ার মতো আমি কিছুই করিনি। আর আমার উপর এতটা ফোকাস করা হোক, সেটাও চাই না। এটা জেনে অবাক হয়ে যাচ্ছি যে সবাই আমার সম্পর্কে এখন সবকিছু জেনে গিয়েছে। আমার ব্যক্তিগত জীবন সকলের সামনে চলে এসেছে। অনলাইনে আমার সম্পর্কে অনেকেই নানা অপ্রীতিকর কথাবার্তা বলছে। অশালীন ভাষায় অনেক মহিলারাও আমায় আক্রমণ করছেন। সকলের কাছে আমার আবেদন, এত সহজে কাউকে বিচার করবেন না। আমি ‘RCB Girl’ অবশ্যই, কিন্তু সেটাই আমার একমাত্র পরিচয় নয়। তার বাইরেও আমার একটা দুনিয়া আছে। দীপিকার কথায় ভারতীয় নেটিজেনদের মানসিকতায় কোনও পরিবর্তন আসে কি না, সেটাই এখন দেখার বাকি।