সংবাদ শিরোনাম
ব্যক্তি স্বার্থ হাসিলের জন্যই প্রিয়া সাহা মিথ্যাচার করেছেন: পূর্তমন্ত্রী | নবীগঞ্জে কলেজছাত্রীকে উত্যক্ত করার অভিযোগে যুবকের ৬ মাসের কারাদন্ড | কুমিল্লায় ছেলেধরা সন্দেহে ফেরিওয়ালাসহ ৪ জনকে গণপিটুনি | হাটে জাল কিনতে গিয়ে ছেলেধরা সন্দেহে গণপিটুনি খেলেন ভ্যানচালক | সকাল ৮টায় ঈদুল আজহার প্রধান জামাত | লাইট আর ফ্যান চালিয়েই মাসে বিদ্যুৎ বিল ১২৮ কোটি টাকা! | উলিপুরে বানভাসিদের কাছে কিস্তির টাকা আদায় করছে এনজিও! | চাঁদপুর শহরে স্কুল শিক্ষিকাকে জবাই করে হত্যা | নোয়াখালীতে চেয়ারম্যান কর্তৃক সাংবাদিক সুমনকে নির্যাতনের প্রতিবাদে মানববন্ধন | যে দুই কারণে জামিন হয়নি মিন্নির |
  • আজ ৬ই শ্রাবণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

জীবনটা আসলেই স্রোতের প্রতিকূলে চলার মতো: ওবায়দুল কাদের

৭:৩৯ অপরাহ্ণ | বুধবার, মে ১৫, ২০১৯ জাতীয়

সময়ের কন্ঠস্বর, ঢাকা: চিকিৎসা শেষে সিঙ্গাপুর থেকে দেশে ফিরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেন, জীবনটা আসলেই স্রোতের প্রতিকূলে চলার মতো। এই শিক্ষা জাতির জনক বঙ্গবন্ধু ও তার কন্যা শেখ হাসিনার কাছ থেকে পেয়েছি। মৃত্যু পথযাত্রী অবস্থায় শুধু শেখ হাসিনা নাম ধরে ডেকেছিলেন এবং সে সময় আমি তার ডাকেও সাড়া দিয়েছিলাম।’

বুধবার (১৫ মে) সন্ধ্যায় হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে তিনি এক প্রতিক্রিয়ায় এসব কথা বলেন।

কাদের বলেন, আমার ওই সময়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পরম মমতা নিয়ে এগিয়ে এসেছেন। তিনি একজন মমতাময়ী মা। তিনি সত্যিই মাদার অব হিউম্যানিটি। তার কাছে আমার ঋণের বোঝা আরও বেড়ে গেল।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘আমার দলের সকল নেতাকর্মীদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। যারা হাসপাতালে আমার ওই সময়ে ছুটে এসেছিলেন। ওই সময় আমার মধ্যে আমি ছিলাম না, আমি জানতাম না আমার কী হয়েছে।’

এর আগে সিঙ্গাপুরে দুই মাস ১০দিন চিকিৎসা শেষে বুধবার (১৫ মে) সন্ধ্যা ৫ টা ৫২ মিনিটে ওবায়দুল কাদেরকে বহনকারী বাংলাদেশ বিমানের বিজি ০৮৫ ফ্লাইটটি ঢাকার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করে।

এদিকে প্রিয় নেতাকে স্বাগত জানাতে আগে থেকেই বিমানবন্দরে জড়ো হন আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীরা। এ সময় ফুল দিয়ে তাকে স্বাগত জানান তারা।

৬৭ বছর বয়সী ওবায়দুল কাদের হৃদরোগ, ডায়াবেটিস ছাড়াও শ্বাসতন্ত্রের জটিল রোগ সিওপিডিতে (ক্রনিক অবসট্রাকটিভপালমোনারি ডিজিজ) ভুগছেন।

গত ২ মার্চ সকালে শ্বাসকষ্ট নিয়ে ঢাকার বিএসএমএমইউতে ভর্তি হলে এনজিওগ্রামে কাদেরের হৃদপিণ্ডের রক্তনালীতে তিনটি ব্লক ধরা পড়ে। এর মধ্যে একটি ব্লক স্টেন্টিংয়ের মাধ্যমে অপসারণ করেন চিকিৎসকরা।

অবস্থা কিছুটা স্থিতিশীল হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য গত ৪ মার্চ এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে করে তাকে সিঙ্গাপুরে নেওয়া হয়। ভর্তি করা হয় মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে।

কয়েকদিন চিকিৎসার পর অবস্থার উন্নতি হলে গত ২০ মার্চ কার্ডিও থোরাসিক সার্জন ডা. শিভাথাসান কুমারস্বামীর নেতৃত্বে কাদেরের বাইপাস সার্জারি হয়। ছয় দিন পর তাকে আইসিইউ থেকে স্থানান্তর করা হয় কেবিনে।

এক মাস পর হাসপাতাল ছাড়লও চিকিৎসকরা ‘চেকআপের জন্য’ আরও কিছু দিন তাকে সিঙ্গাপুরে থাকার পরামর্শ দেন। এরপর একটি বাসা ভাড়া করে সিঙ্গাপুরে অবস্থান করেন ওবায়দুল কাদের।