পাবনায় প্রভাষককে মারধর: দুই আসামি গ্রেপ্তার

৫:১৩ অপরাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, মে ১৬, ২০১৯ আলোচিত বাংলাদেশ

সময়ের কণ্ঠস্বর, পাবনা- পাবনা সরকারি শহীদ বুলবুল কলেজের প্রভাষক মাসুদুর রহমানকে মারধরের ঘটনায় মামলা হয়েছে। বুধবার রাতে কলেজ অধ্যক্ষ এস এম আব্দুল কুদ্দুস এ মামলাটি করেন।

মামলায় দুইজনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতনামা ৩-৪ জনকে আসামি করা হয়। আর মামলার পর রাতেই অভিযান চালিয়ে এজাহারনামীয় দুই আসামিকে গ্রেপ্তার করা হয়।

এরা হলো পাবনার ঈশ্বরদী উপজেলার গোকুলনগর গ্রামের সজল ইসলাম ও সদর উপজেলার মালঞ্চি গ্রামের শাফিন শেখ।

পাবনার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (পুলিশ সুপার পদে পদোন্নতি প্রাপ্ত) গৌতম কুমার বিশ্বাস জানান, বুধবার রাতে সরকারি শহীদ বুলবুল কলেজের অধ্যক্ষ এস এম আব্দুল কুদ্দুস বাদী হয়ে সজল ইসলাম ও শাফিন শেখের নাম উল্লেখ করে আরো অজ্ঞাতনামা তিন থেকে চারজনকে আসামি করে পাবনা সদর থানায় মামলা করেন। মামলা দায়েরের পর তাঁর নেতৃত্বে সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ওবাইয়দুল হক, পরিদর্শক (অপারেশন) হাফিজুর রহমানসহ পুলিশের একটি দল অভিযান চালিয়ে শাফিন শেখ ও সজল ইসলামকে গ্রেপ্তার করে।

এদিকে শিক্ষক মাসুদুর রহমানের ওপর ন্যাক্কারজনক হামলার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে মানববন্ধন করেছে বিসিএস সাধারণ শিক্ষা সমিতি পাবনা জেলা শাখা। বৃহস্পতিবার দুপুর ২টায় পাবনা প্রেসক্লাবের সামনে আয়োজিত এই মানববন্ধনের পাবনা শহরের পাঁচটি সরকারি কলেজের শিক্ষকরা অংশ নেন।

মানববন্ধনে বক্তব্য দেন, বিসিএস সাধারণ শিক্ষা সমিতি পাবনা জেলা শাখার ভারপ্রাপ্ত সভাপতি শহিদুল ইসলাম, সরকারি এডওয়ার্ড কলেজের প্রভাষক রাজু আহমেদ, সহযোগী অধ্যাপক নুরে আলম, সরকারি শহীদ বুলবুল কলেজের সহকারী অধ্যাপক মো. কামরুজ্জামান, সরকারি মহিলা কলেজের সহযোগী অধ্যাপক আব্দুর রব, সদর থানার ওসি ওবাইদুল হক প্রমুখ।

এ সময় সদর থানার ওসি ওবাইদুল তার বক্তব্যে শিক্ষকদের ধৈর্য্য ধরে পুলিশের ওপর আস্থা রেখে সহযোগিতার আহ্বান জানান। তিনি বলেন, ইতিমধ্যে মামলা নিয়ে দু’জন হামলাকারীকের গ্রেফতার করা হয়েছে। সিসিটিভির ফুটেজ দেখে কেউ জড়িত প্রমাণ পেলে তাদেরও গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনা হবে।