স্ত্রীর পরকীয়া প্রেমিক ও তার দুই বোনকে গাছে বেঁধে বেধড়ক মারপিট

৫:৪৩ অপরাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, মে ১৬, ২০১৯ আন্তর্জাতিক

আন্তর্জাতিক ডেস্ক- বিবাহিত নারীর সঙ্গে পালিয়ে যাওয়ার অভিযোগে ভারতের মধ্যপ্রদেশের ধর জেলায় এক পরকীয়া প্রেমিক ও তার দুই বোনসহ গাছের সঙ্গে বেঁধে মারধর করা হয়েছে।

এনডিটিভি জানিয়েছে, মধ্যপ্রদেশের ওই ব্যক্তিকে এবং তার চাচাতো বোনদের গাছের সঙ্গে একত্রে বেঁধে টানা কয়েক ঘণ্টা পেটানো হয়। ওই দুই বোনের মধ্যে একজন ছিল কিশোরী।

স্থানীয় পুলিশ বলছে, গত মঙ্গলবার ওই যুবকের সঙ্গে পালিয়ে যান অর্জুন কলোনির এক নারী। তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক ছিল। স্ত্রীর খোঁজ পেতে স্থানীয় থানায় সাধারণ ডায়েরি করেন ওই নারীর স্বামী মুকেশ। পরে ফোনে যোগাযোগ করে তাকে ঘরে ফিরে আসার অনুরোধ জানান তিনি। তারা ফিরে আসার পর, প্রেমিক যুবক ও তার দুই বোনের ওপর হামলা চালান ওই নারীর স্বামী।

গ্রামবাসীদের সঙ্গে নিয়ে তিনজনকে গাছের সঙ্গে বেঁধে মারধর করা হয়। পালাতে সাহায্য করার অপরাধে বেধড়ক মারপিট করা হয় যুবকের দুই বোনকেও। গাছে বেঁধে চলে তাদের ওপর নির্মম নির্যাতন।

তাদেরকে মারধরের দৃশ্য দাঁড়িয়ে দেখেন শত শত মানুষ। অনেকেই মোবাইল ফোনে ছবি এবং ভিডিও ধারণ করেন, কিন্তু কেউই তাদের সহায়তায় এগিয়ে আসেননি। এ ঘটনার একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছাড়েন এক ব্যক্তি। পরে মুহূর্তের মধ্যেই তা ভাইরাল হয়ে ছড়িয়ে পড়ে।

একটি ভিডিও ক্লিপে দেখা গেছে, মুকেশ বেঁধে রাখা তিনজনকে একটানা লাঠিপেটা করছে আর তারা প্রতিটি আঘাতের সঙ্গে ব্যথায় চিৎকার করে উঠছে।

আরেকটি ভিডিওতে একজন নারীকে চিৎকার চেঁচামেচি করে ভিড় থেকে বের হয়ে এসে বেঁধে রাখা দুই বোনের একজনের চুল টেনে ধরতে দেখা যায়।

ভিডিও ভাইরাল হওয়ার পর তদন্ত শুরু করে পুলিশ। ভিডিও ৯ জনকে শনাক্তের পর তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। ইতোমধ্যে পাঁচজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।