সংবাদ শিরোনাম
স্কুলছাত্রী প্রেমিকাকে বেড়াতে নিয়ে বন্ধুকে সাথে করে শিক্ষকের গণধর্ষণ! | আজ ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কে ২ ফ্লাইওভার ৪ আন্ডারপাস উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী | মাদ্রাসায় যৌন হয়রানি রোধে নারী মেন্টর রাখার সিদ্ধান্ত | ‘নতুন চ্যালেঞ্জ নিয়ে রাজনীতি করবে জাসদ’- ইনু | টাঙ্গাইলে পুলিশি অভিযানে এক ব্যক্তির মৃত্যু ! সড়কে আগুন জ্বালিয়ে বিক্ষোভ | ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশটাকে অনেক উচ্চতায় নিয়েছে’- কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক | ছাত্রলীগের নিজস্ব নিউজপোর্টালের যাত্রা শুরু | মোদি ও অমিত শাহকে অভিনন্দন জানালেন ড. কামাল | কার্ডিফে টাইগারদের জন্য খুদে ভক্তদের উন্মাদনা (ভিডিওসহ) | অনুশীলনের ফাঁকে মাহমুদউল্লাহর ইমামতিতে ‘জুমার নামাজ’ আদায় করলো টাইগাররা |
  • আজ ১১ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

অন্যের স্ত্রীকে নিয়ে পালালেন হামদর্দের এমডি!

১:০৭ পূর্বাহ্ণ | শুক্রবার, মে ১৭, ২০১৯ চট্টগ্রাম
hamdaerd

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্কঃ হামদর্দ ফাউন্ডেশনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) মো. ইউসুফ হারুন ভূঁইয়ার বিরুদ্ধে লক্ষ্মীপুর আদালতে মামলা করা হয়েছে। মামলায় বিয়ের প্রভোলন দেখিয়ে এক গৃহবধুকে ভাগিয়ে নেয়ার অভিযোগ করা হয়। মামলায় গৃহবধূ কামরুন নাহার পলিনকেও আসামি করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১৬ মে) দুপুরে গৃহবধূর স্বামী নাজিম উদ্দিন রিপন বাদী হয়ে লক্ষ্মীপুর সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মামলাটি করেন।

জানা গেছে, কামরুন নাহার পলিন হামদর্দ ফাউন্ডেশন পরিচালিত লক্ষ্মীপুর সদরের দত্তপাড়া রৌশন জাহান ইস্টার্ন মেডিকেল কলেজের (ইউনানি) সহকারি অধ্যাপক ছিলেন। ২২ এপ্রিল ব্যক্তিগত কারণ দেখিয়ে কলেজ থেকে অবসরে যাওয়ার আবেদন করেন তিনি।

মামলার বাদী বলেন, আমার স্ত্রীর পলিনের সঙ্গে হামদর্দ ফাউন্ডেশনের এমডি ও জামায়াত নেতা ইউসুফ হারুনের পরকীয়া প্রেমের সম্পর্ক ছিল। ১৫ এপ্রিল বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে আমার স্ত্রীকে ভাগিয়ে নিয়ে যান ইউসুফ হারুন। তাকে ফিরিয়ে আনতে মোবাইল ফোনে কল করলে হারুন আমাকে হত্যাসহ মিথ্যা মামলা জড়িয়ে দেয়ার হুমকি দেন।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, ২০১৭ সালে বিয়ের পর থেকে বাদী রিপন স্ত্রী পলিনকে নিয়ে লক্ষ্মীপুর পৌরসভার দক্ষিণ মজুপুর এলাকায় একটি ভাড়া বাসায় বসবাস করতেন। পরবর্তীতে হামদর্দ ফাউন্ডেশনের এমডি ইউসুফ হারুনের সঙ্গে স্ত্রী পলিনের পরকীয়া প্রেমের সম্পর্কের বিষয়টি আঁচ করতে পারেন রিপন। ১২ এপ্রিল নিজের বাসায় স্ত্রী পলিনের সঙ্গে আপত্তিকর অবস্থায় হারুনকে দেখে চিৎকার করেন রিপন। পরে আশপাশের লোকজন এসে তাদেরকে হাতেনাতে আটক করেন।

এরপর ১৫ এপ্রিল বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে পলিনকে ভাগিয়ে নিয়ে যান হারুন। এ সময় দুই লাখ টাকাসহ মূল্যবান স্বর্ণালঙ্কার নিয়ে যায় পলিন।