কমলাপুর রেলস্টেশনে টিকিটের সার্ভাররুমে দুদকের অভিযান

১:৫৩ অপরাহ্ণ | বুধবার, মে ২২, ২০১৯ জাতীয়

সময়ের কণ্ঠস্বর, ঢাকা- ঈদুল ফিতর উপলক্ষে ঘরমুখো মানুষের জন্য রেলের অগ্রিম টিকেটের অর্ধেক অনলাইনে ও রেলওয়ের নির্ধারিত অ্যাপের মাধ্যমে বিক্রির কথা থাকলেও সেখান থেকে যাত্রীরা টিকেট কিনতে পারছেন না।

আর বিষয়টি স্বীকার করে দুঃখ প্রকাশ করেছেন রেলপথমন্ত্রী নুরুল ইসলাম সুজন। একই সঙ্গে এই ব্যর্থতার দ্বায়ভার নিজের কাঁধে নিয়ে অ্যাপসে সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে ঈদের পর ব্যবস্থা নেওয়ার কথা বলেছেন মন্ত্রী।

এদিকে যাত্রীদের অভিযোগ পেয়ে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) একটি দল রাজধানীর কমলাপুর রেলস্টেশনে টিকেট বিক্রির সার্ভাররুমে অভিযান চালায়। টিমের নেতৃত্ব দেন দুদকের সহকারী পরিচালক আলমগীর হোসেন।

সেখানে টিকেট ব্যবস্থাপনা সংস্থা সিএনএসের প্রতিনিধিকে সার্ভার ডাউন ও কালোবাজারি সম্পর্কে জিজ্ঞেস করলে তিনি কোনো ‘সদুত্তর’ দিতে পারেননি বলে জানায় দুদক।

অভিযানে থাকা দুদকের উপসহকারী পরিচালক মনিরুল ইসলাম গণমাধ্যমকে বলেন, ‘টিকেট ব্যবস্থাপনায় সিএনএসের কারসাজি করছে বলে সন্দেহ হচ্ছে।’

তিনি বলেন, আমরা টিকিট সংগ্রকারীদের কাছ থেকে অভিযোগ পেয়ে এসেছি। এখানে অনলাইন টিকিটিং সিস্টেমের সার্ভারের কর্মকর্তারা বলেছেন, সার্ভার ডাউন হয়ে যাচ্ছে। তাই টিকিট পেতে একটু সমস্যা হচ্ছে। সার্ভার ডেভেলেপমেন্টের কাজ চলছে।

তিনি আরো বলেন, আমরা তাদের বলেছি, যেন কোনো কালোবাজারি না হয়, সে দিকে সতর্ক থাকবে। কালোবাজারি হলে পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

মনিরুল ইসলাম জানান, আমরা এখানে শুধু অনলাইন টিকিটিং সিস্টেম দেখছি না, সার্বিক দিক দেখছি। সার্বিক দিক বিষয়ে এখনই কিছু বলা যাচ্ছে না। পরে বলা যাবে।