ছাড়পত্র ছাড়াই ময়মনসিংহে ফসলি জমিতে চলছে ইটভাটার নির্মাণকাজ

৮:২৫ অপরাহ্ণ | বুধবার, মে ২২, ২০১৯ ময়মনসিংহ
Mymensing

আব্দুল মান্নান পল্টন,ময়মনসিংহ ব্যুরো: ময়মনসিংহ সদর উপজেলায়  আবাসিক এলাকার ফসলি জমিতে ছাড়পত্র ছাড়াই প্রভাবশালীরা অদৃশ শক্তির দাপটে   চালিয়ে যাচ্ছেন ইটভাটা নির্মাণকাজ।

এতে চরম উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েছেন  ওই অঞ্চলের বসবাসরত মানুষ কৃষকরা।  এখানে ইটভাটা চালু হলে চরমভাবে নষ্ট হবে ফসলি জমির আবাদ।  আবাসিক এলাকায় বসবাসরত মানুষ  চরম ঝুকির মুখে পরবে। পরিবেশ  নষ্ট হওয়ার আশংকা করছেন তারা। লাইসেন্স বিহীন ইটভাটা বন্ধে দ্রুত প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন এলাকার কৃষকসহ সাধারণ জনগণ।

সরেজমিনে দেখা যায়, ময়মনসিংহ সদর উপজেলার ২ নং কুষ্টিয়া ইউনিয়নের কুষ্টিয়া চকপাড়া গ্রামে তিন ফসলি কৃষি জমি ও আবাসিক এলাকায় ইটভাটা নির্মাণের কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন স্থানীয় কয়েক প্রভাবশালী। জেলা পরিবেশ অধিদপ্তরের কোনো ধরণের অনুমতি ও ছাড়পত্র ছাড়াই এবং স্থানীয় প্রশাসনের কোনো তৎপরতা না থাকায় কৃষি জমিতে একটি ইটভাটার নির্মাণকাজ চলছে বীরদর্পে। ২০১৩ সালের ইট প্রস্তুত ও ভাটা স্থাপন (নিয়ন্ত্রণ) আইনকে অমান্য করে ভাটা গড়ে তুলছেন প্রভাবশালী জোবায়ের এবং আশরাফুল আলম আশু। এতে ভাটার পাশের শত শত একর ফসলি জমির মালিক ও কৃষকরা দুশ্চিন্তায় পড়েছেন।

ইটভাটাটি গড়ে উঠলে গাছপালা, ঘরবাড়িসহ কৃষি জমির ফসল মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হবে।

ইটভাটা স্থাপনে লাইসেন্সের ব্যাপারে কোনো সদুত্তর দিতে পারেনি ইটভাটার মালিক জোবায়ের।

সদর উপজেলা কৃষি অফিসার তাহমিনা ইয়াসমিন জানান, ফসলি জমিতে ইটভাটা করার ব্যাপারে কেউ কোনো অনুমতি নেয়নি। উপজেলা প্রশাসনকে বিষয়টি অবগত করে ইটভাটাটির বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নিতে সুপারিশ করা হবে বলে জানান তিনি।

সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার শেখ হাফিজুর রহমান জানান, অনুমোদনহীন ইটভাটাটির বিরুদ্ধে শীঘ্রই আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।