বিশ্বাসঘাতক নেতাদের খুঁজে বের করার নির্দেশ দিলেন মমতা

৬:২৮ অপরাহ্ণ | সোমবার, মে ২৭, ২০১৯ আন্তর্জাতিক

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :: সাধারণ ভারতীয়দের সমস্যার সমাধানে দ্বিতীয় মেয়াদের পাঁচ বছর কাজে লাগানোর অঙ্গীকার করেছেন পুনরায় ক্ষমতায় আসা প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। ১৭তম লোকসভা নির্বাচনে নিরঙ্কুশ বিজয়ের পর নিজ প্রদেশ গুজরাটের আহমেদাবাদে প্রথম জনসভায় এ ঘোষণা দেন তিনি। এদিকে, পশ্চিমবঙ্গে তৃণমূলের নির্বাচনী ধাক্কা সামলাতে কাজ শুরু করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। যারা দলের সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করেছে তাদের খুঁজে বের করার নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।

সদ্য অনুষ্ঠিত লোকসভা নির্বাচনে বিপুল ভোটে বিজয়ী হওয়ার পর মায়ের সঙ্গে দেখা করতে রোববার নিজ শহর গুজরাটের গান্ধীনগরে ছুটে যান প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্রে মোদি। নেন মায়ের আশীর্বাদ।

গান্ধীনগর থেকে সন্ধ্যায় আহমেদাবাদে জনসভায় যোগ দেন নরেন্দ্র মোদি। গুজরাটবাসী ও বিজেপি সমর্থকদের উদ্দেশ্যে দেয়া ভাষণে, নতুন ভারত গড়ার অঙ্গীকার করেন তিনি। সাধারণ মানুষের সব সমস্যা নিরসনে আগামী পাঁচ বছর কাজ করার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন নরেন্দ্র মোদি।

এদিকে, আমেথিতে বিজেপি সমর্থক সুরেন্দ্র সিং হত্যাকাণ্ডের জেরে কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধীকে কটাক্ষ করেছেন স্মৃতি ইরানি। রোববার সুরেন্দ্র সিংয়ের শেষকৃত্যানুষ্ঠানে যোগ দিয়ে তিনি বলেন, নির্বাচনে হারার পর রাহুল গান্ধী আমেথিকে দেখে রাখতে যে বার্তা দিয়েছেন তা তিনি পরিষ্কারভাবে পেয়েছেন। যে কোন মূল্যে তার সহযোগীকে হত্যাকারীদের মৃত্যুদণ্ড নিশ্চিতের অঙ্গীকার করেন স্মৃতি ইরানি।

এরমধ্যেই, লোকসভা নির্বাচনে কোনরকমে উৎরে গেলেও দলের শোচনীয় অবস্থার কারণ খুঁজতে হিসেব নিকেশ করছে পশ্চিমবঙ্গের ক্ষমতাসীন তৃণমূল কংগ্রেস। মাত্র চার আসনের ব্যবধানে কেন্দ্রে ক্ষমতাসীন বিজেপির বিরুদ্ধে কোন রকম জয় পেয়েছে দলটি। তৃণমূলের ঘাঁটি হওয়া সত্ত্বেও বিপুল সংখ্যক ভোট বিজেপির ব্যাংকে জমা পড়ায় ক্ষুব্ধ দলের নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। দলের বিভিন্ন নেতাদের বরাতে গণমাধ্যম জানিয়েছে, দলের সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করা নেতাদের খুঁজে বের করার নির্দেশ দিয়েছেন মমতা।