সংবাদ শিরোনাম
শাহজাদপুরে পুলিশের বিরুদ্ধে গরু ব্যবসায়ীর টাকা ছিনতাইয়ের অভিযোগ | শেরপুরের নকলায় মুক্তিযোদ্ধাদের মাঝে কম্বল বিতরণ | কৃষকদের সম্মান জানাতে ভিন্নধর্মী সাজে  নোবিপ্রবির  শিক্ষার্থীরা | ৭২ ঘণ্টার মধ্যে আতিকুলের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ | ‘কেউ একজন আমাকে ঘৃণা করে’ আত্মহত্যার আগে কিশোরের ফেসবুক পোস্ট | ‘শুধুমাত্র প্রথম শ্রেণিতে কোটা বাতিল জাতির সঙ্গে প্রতারণা’- ভিপি নুর | ইসরাইলের বিপক্ষে খুতবা দেয়ায় আল আকসার খতিব বরখাস্ত | ‘দেশের গণমাধ্যম অবাধ স্বাধীনতা ভোগ করছে’- তথ্যমন্ত্রী | সংসদে বানরের জন্য অর্থ বরাদ্দ চাইলেন শাজাহান খান | মোদি সরকারের বিরুদ্ধে কলকাতায় ৩ দিনের গণ-অবস্থান কর্মসূচি |
  • আজ ৮ই মাঘ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

‘জয় শ্রী রাম’ না বলায় প্রহার, একজনকে গুলি

১:২৮ পূর্বাহ্ণ | মঙ্গলবার, মে ২৮, ২০১৯ আন্তর্জাতিক

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :: ভারতে ‘জয় শ্রী রাম’ না বলায় এক মুসলিম যুবককে মারধর এবং নাম বলায় অপর এক মুসলমান যুবককে গুলি করা হয়েছে। মাথায় টুপি পরার অপরাধে মোহাম্মদ বরকত নামের এক মুসলমান ব্যক্তিকে পিটিয়েছে কয়েকজন যুবক।

গত রোববার রাতে ভারতের হরিয়ানা রাজ্যের গুরুগ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে। লাঞ্ছনার শিকার ২৫ বছর বয়সী ওই যুবক ফজরের নামাজ শেষে বাড়ি ফিরছিলেন। এসময় তার মাথায় ছিল টুপি। যা দেখে গুরুগ্রামের সর্দার বাজারের কাছে পাঁচ-ছয় যুবক তাকে ঘিরে ধরে। নামাজের কথা বলার পরই ওই যুবকরা রেগে যায়। এরপর তারা ওই যুবকের টুপি খুলে নেয়। তারা জানায়, ওই এলাকায় মাথায় টুপি পরে চলাফেরা করা নিষেধ। খবর এনডিটিভির।

অভিযোগ উঠেছে, শুধু মাথার টুপি খুলে নেয়াই নয় বরকতকে থাপ্পড়ও মেরেছে তারা। এছাড়া তাকে ‘জয় শ্রী রাম’ বলতে বলা হয়। এমনকি শূকরের মাংস খাওয়ানোরও হুমকি দেয়া হয়। গুরুগ্রামে টেইলারিং শিখতে আসা বরকত বলেন, তারা আমাকে ‘জয় শ্রী রাম’ বলতে বলে। আমি সেটা বলতে অস্বীকার করলে, আমাকে শূকরের মাংস খাওয়ানোর হুমকি দেয় তারা।

তিনি অভিযোগ করে বলেন, ওই ব্যক্তিরা এক পর্যায়ে একটি লাঠি নিয়ে আমাকে পেটাতে থাকে এবং লাথি-কিলঘুষি মারতে থাকে। এদিকে বরকতকে মারধরের ঘটনায় গুরুগ্রামের সর্দার বাজার এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে।

পুলিশ জানিয়েছে, কারা ওই ঘটনা ঘটিয়েছে তা খুঁজে বের করার চেষ্টা করছেন তারা। এছাড়া অশান্তি এড়াতে সতর্ক থাকার কথাও জানিয়েছে পুলিশ।

অপর এক ঘটনায় মুসলমান এক যুবক নিজের নাম না বলায় এবার গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। গত রোববার ভারতের বিহারের বেগুসরাই জেলায় এ ঘটনা ঘটেছে। ঘটনার পর ওই মুসলমান ব্যক্তির এক ভিডিও সামাজিক মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। যুবকের নাম মোহাম্মদ কাশিম।

জানা যায়, ব্যবসায়িক কাজে কাশিম তার মোটরসাইকেলে করে পাশের গ্রাম কুম্ভিতে যান। ওই গ্রামের রাজিব যাদব নামের এক ব্যক্তি তার নাম জিজ্ঞেস করেন। এসময় কাশিম তার নাম বললে যাদব তাকে গুলি করে এবং বলে তোমার পাকিস্তানে চলে যাওয়া উচিত।

কাশিম আরো বলেন, রাজিব একবার গুলি চালানোর পর আবার তার বন্দুকে গুলি ঢোকাতে শুরু করে। এসময় আমি তাকে ধাক্কা দিয়ে পালিয়ে আসি। এ ঘটনায় থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন কাশিম। পুলিশ যাদবকে গ্রেপ্তারে অভিযান অব্যাহত রেখেছে।

Loading...