‘জয় শ্রী রাম’ স্লোগানে খেপলেন মমতা, গ্রেপ্তার ১০

১২:১৭ পূর্বাহ্ণ | শনিবার, জুন ১, ২০১৯ আন্তর্জাতিক
momta

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের গাড়ির সামনে ‘জয় শ্রী রাম’ ধ্বনি দেওয়ার অভিযোগে ১০ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার নৈহাটিতে জনসভা করতে যান পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বিজেপির হাতে আক্রান্ত তৃণমূল কর্মীদের বাড়ি ফেরানোর জন্য তিনি সেখানে ধরনা মঞ্চে অংশ নেন। যাওয়ার পথে ভাটপাড়া জুটমিলের কাছে তার কনভয় লক্ষ্য করে ‘জয় শ্রী রাম’ স্লোগান দিতে শুরু করেন স্থানীয় কয়েকজন।

আর তা শুনেই মেজাজ হারান মুখ্যমন্ত্রী। সঙ্গে সঙ্গে গাড়ি থামিয়ে রাস্তায় নেমে পড়েন মমতা। স্লোগানরত যুবকদের তাড়া করে ধমক দিয়ে তিনি বলেন, ‘কী সাহস! গালাগালি দিচ্ছে ওরা। আয়, আয় এগিকে আয়। কার কি বলার সামনে আয়।’ এরপর তিনি ক্যামেরার দিকে তাকিয়ে বলেন, ‘তারা বাংলার স্থানীয় নন। এদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

এরপর মঞ্চে যেয়ে দলীয় কর্মী সমর্থকদের উদ্দেশে তৃণমূল নেত্রী বলেন, ‘আমি কখনও বাঙালি-আবাঙালি, হিন্দু-মুসলিম, শিখ-খ্রিস্টান বিভেদ করি না। কিন্তু কয়েকজন বিজেপির টাকায় মাথায় ফেট্টি বেঁধে তাণ্ডব চালিয়ে বেড়াচ্ছে। অত্যাচার চালাচ্ছে।’

ব্যারাকপুর লোকসভা আসনটি তিনি পুনরুদ্ধার করবেনই বলে জানান মমতা। যে সব তৃণমূল কর্মী-সমর্থকদের ঘর ভাঙা হয়েছে, তিনদিনের মধ্যে তার একটি তালিকা তিনি চান জেলা নেতৃত্বের কাছে। যেসব ক্লাব ভাঙা হয়েছে, সেগুলো তিনি দেখে নেবেন বলে প্রতিশ্রুতি দেন।

মমতার অভিযোগ, লোকসভা ভোটে নির্বাচন কমিশন বিজেপির মুখপাত্র হিসাবে কাজ করেছে। তৃণমূলের উপর অত্যাচার নিয়ে ৪০০ এফআইআর দায়ের হলেও, নির্বাচন কমিশন কোনো পদক্ষেপ করেনি। এবার, অত্যাচার হলে, তিনি সহ্য করবেন না বলেও জানান মমতা।

মুখ্যমন্ত্রীকে গাড়ি থেকে নামতে দেখে ছুটে আসেন নিরাপত্তা কর্মীরা। ক্ষুব্ধ মমতা এরপর গাড়িতে উঠলে আবার যাত্রা শুরু হয়। পরে নৈহাটির মঞ্চ থেকে মমতা বলেন, ‘বাংলাকে কোনোদিন গুজরাট হতে দেব না।’

তার দাবি, ভাটপাড়ায় জুটমিলের সামনে বেশ কিছু যুবক তার গাড়িতে হামলা চালানোর চেষ্টা করে। কীভাবে এত সাহস পায় ওরা, তা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন মমতা। এ সময় বাংলায় গুন্ডামি, মাস্তানি সহ্য করা হবে না বলেও হুঁশিয়ারি দেন মমতা। এরপরেই সব বাড়িতে চেকিং চালানোর জন্যে পুলিশকে নির্দেশ দেন প্রশাসনিক প্রধান।

উল্লেখ্য, লোকসভা নির্বাচনে নির্বাচনের প্রচারের সময় মেদিনীপুরে ভোট প্রচারে যাওয়ার সময় একইভাবে তাকে দেখে একই স্লোগান দেয় একদল যুবক। সে সময় কয়েকজনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। যা নিয়ে কটাক্ষও করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। এবারও সেই একই ঘটনা ঘটল।