সংবাদ শিরোনাম
মহিলাকে রাম দা দেভিয়ে ফেঁসে গেলেন যুবলীগ নেতা! | মেয়ের বাড়িতে মিলিত হতে গিয়ে আপত্তিকর অবস্থায় ধরা পড়ল যুবক! | ঘরের দরজা খুলে গৃহবধূর মুখ চিপে চারজন মিলে পালাক্রমে গনধর্ষণ! | ১০ বছরের শিশুকে সুপারি বাগানে নিয়ে ধর্ষণচেষ্টা চালাল রিক্সা চালক! | গায়ে হলুদের অনুষ্ঠানে অশ্লীল নৃত্য ও মদের আসরের প্রতিবাদ করায় প্রবাসীকে পিটিয়ে হত্যা! | ভারতের কাছে পাকিস্তানের লজ্জার হার! | আমেরিকার ঘুম হারাম করতে অবাক করা খবর দিলেন এরদোগান! | জাদুর খেলা দেখাতে গিয়ে মাঝনদীতে ‘ভ্যানিস’ জাদুকর! | মুক্তিযুদ্ধে চেতনা ও দক্ষতা বিবেচনায় পদোন্নতির নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর | রাজবাড়ীতে ইউপি চেয়ারম্যান কালাম মৃধাকে কুপিয়ে যখম |
  • আজ ৩রা আষাঢ়, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

ফাঁকা পাটুরিয়া ঘাঁটে স্বস্তির যাত্রা

৪:১২ অপরাহ্ণ | সোমবার, জুন ৩, ২০১৯ ফিচার

দেওয়ান আবুল বাশার, স্টাফ রিপোর্টার: যানবাহনের দীর্ঘ সারি। ফেরির জন্য ঘণ্টার পর ঘণ্টা অপেক্ষা। যাত্রীদের দুর্ভোগ ভোগান্তি। এসবই চিরচেনা রূপ পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া ঘাটের। কিন্তু সোমবার দিনভর দেশের গুরুত্বপূর্ণ এই ঘাটের চিত্র পুরো পাল্টে যায়।

ঘাটে কোন যানবাহনকে ফেরির অপেক্ষায় থাকতে হয়নি। টার্মিনাল, রাস্তা সবখানেই যানবাহন শূন্য খাঁ খাঁ অবস্থা। স্বস্তি নিয়ে ফেরি ও লঞ্চ পারাপার হয়েছেন ঘরমুখো মানুষ। কম সময়ে ঘাট পার হতে পেরে তাদের চোখে মুখে ছিলো খুশির ঝিলিক।

বিআইডব্লিউটিসি সূত্র জানায়, শুক্রবার ভোর থেকে রাত পর্যন্ত যানবাহনের কিছুটা চাপ ছিলো। যার মধ্যে ব্যক্তিগত গাড়ির সংখ্যাই ছিলো বেশি। ফেরি পার হতে একেকটি যানবাহনকে প্রায় তিন ঘণ্টা অপেক্ষায় থাকতে হয়েছে। তবে শনিবার সকাল থেকেই ঘাটের চিত্র পুরোপুরি পাল্টে যায়। রবিবার সারাদিন থেমে থেমে কিছুটা জ্যাম হলেও দীর্ঘ লাইন হয়নি। আজ সোমবারও বাস কিম্বা ছোট গাড়ি ঘাটে পৌঁছেই ফেরিতে ওঠতে পেরেছে। দীর্ঘ লাইনে তাদেরকে আর পারের অপেক্ষায় দাঁড়িয়ে থাকতে হয়নি।

এতটা স্বস্তির যাত্রা কিভাবে সম্ভব হয়েছে? কারণ হিসাবে বিআইডব্লিউটিসির এজিএম জিল্লুর রহমান জানান, পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌ-রুটে আগে যেখানে ১১ থেকে ১৪টি ফেরি যানবাহন পারাপারে নিয়োজিত থাকতে, সেখানে বর্তমানে ফেরি সংখ্যা রয়েছে ২০টি যার ১৯টিই পারাপারে নিয়োজিত আছে। তাছাড়া পাটুরিয়া ঘাটে ঘরমুখো মানুষ ও যানবাহনের চাপ থাকলেও দৌলতদিয়া ঘাটে যানবাহনের তেমন চাপ নেই। ফেরিগুলো দৌলতদিয়ায় যানবাহন পৌঁছে দিয়েই দ্রুত পাটুরিয়া ঘাটে ফিরে আসছে।

এছাড়া ঈদ উপলক্ষে সড়কে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী তৎপর থাকায় গাড়ি গুলো সুশৃঙ্খলভাবে ফেরি ঘাটে আসছে। পাটুরিয়া ৫ নম্বর ঘাট দিয়ে শুধুমাত্র ছোট গাড়ি পারাপার করা হয়। এছাড়া ঘাটে কোন পণ্যবাহী ট্রাকও নেই। সব মিলেয়ে ১৯টি ফেরিই একযোগে যানবাহন পারাপারে নিয়োজিত থাকায় ঘাটে যানবাহন গুলোকে ঘণ্টার পর ঘণ্টা অপেক্ষায় থাকতে হয়নি।

আজ সকালে কথা হয় ঈদের ছুটিতে ঘরমুখো কয়েকজন যাত্রীদের সাথে, ঘাটে পৌঁছেই ফেরিতে উঠতে পেরে ভীষণ খুশি তারা। জানান, প্রতিবছরই বাড়ি যাওয়ার সময় ফেরি ঘাটে বেশ ভোগান্তিতে পড়তে হয়। কিন্তু এবার এসেই নদী পার হতে পারবেন চিন্তাও করেননি। স্বস্তির এই যাত্রার জন্য তারা সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ জানান। তাদের মতো একই প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন অনেক পরিবহন চালকেরা।

মানিকগঞ্জের পুলিশ সুপার রিফাত রহমান শামীম বলেন, ঢাকা-আরিচা মহাসড়কে যানজট কিংবা কোনো অপ্রীতিকর ঘটনারোধে পুলিশসহ ৫ শতাধিক আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য মোতায়েন রয়েছে তারা সর্বদা তৎপর আছে।

জেলা প্রশাসক এস এম ফেরদৌস বলেন, মানিকগঞ্জ জেলা প্রশাসন, যাত্রীদের যাতায়াত নির্বিঘ্ন করতে ঘাট এলাকায় শৌচাগার স্থাপন, নিয়ন্ত্রণ কক্ষ, মেডিকেল টিম, মোবাইল কোর্ট পরিচালনাসহ নানা প্রস্তুতি গ্রহণ করেছে। ঈদের আগে ও পরে কয়েকদিন গাড়ির চাপ কিছুটা থাকলেও কোন প্রকার দূর্ভোগ নেই।