বদলির আদেশ বাতিল হওয়ার পর যা বললেন শাহরিয়ার

৩:২৮ অপরাহ্ণ | মঙ্গলবার, জুন ৪, ২০১৯ আলোচিত বাংলাদেশ

ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের ঢাকা বিভাগীয় কার্যালয়ের উপপরিচালক মঞ্জুর শাহরিয়ারকে গতকাল সোমবার বদলির আদেশ দিয়েছিল জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়। তাঁর বদলির আদেশ হওয়ার পরই গতকাল রাতভর সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে এ নিয়ে আলোচনা-সমালোচনা হয়। এর মধ্যেই আজ মঙ্গলবার সকালে তাঁর বদলির আদেশ প্রত্যাহার করে নেয় সরকার।

মঙ্গলবার দুপুরে নিজের বদলির আদেশ ও তা বাতিলের পর এক প্রতিক্রিয়ায় গণমাধ্যমের কাছে শাহরিয়ার বলেন, ‘সরকারি চাকরি করি। সরকার যেখানে যোগ্য মনে করবে সেখানেই বদলি করবে। এটা স্বাভাবিক বিষয়।’

তিনি বলেন, ‘আমাকে বদলি করা হয়েছিল। এটি বাতিল করে আবার ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতরে রাখা হয়েছে। আমি আগে এখানে কাজ করেছি, আগামীতেও সততা, নিষ্ঠা ও যোগ্যতার মাধ্যমে সর্বোচ্চ কাজ করার চেষ্টা করবো।’

এর আগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে মঞ্জুর মোহাম্মদ শাহরিয়ারের বদলির আদেশ বাতিল করে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়। প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী বিপ্লব বড়ুয়া আজ মঙ্গলবার দুপুরে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

উল্লেখ্য, সোমবার দুপুরে একটি পাঞ্জাবির দাম পাঁচ দিনের ব্যবধানে দ্বিগুণ রাখায় আড়ংয়ের উত্তরা শাখাকে সাড়ে চার লাখ টাকা জরিমানা করেন মঞ্জুর মোহাম্মদ শাহরিয়ার। একইসঙ্গে আড়ংয়ের ওই শাখাটিকে ২৪ ঘণ্টা বন্ধ রাখারও নির্দেশ দেন তিনি। এর কয়েক ঘণ্টা পরেই তার বদলির আদেশ সংক্রান্ত একটি প্রজ্ঞাপন জারি করে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়।

উপসচিব মুহাম্মদ আবদুল লতিফ স্বাক্ষরিত ওই প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের বিভাগীয় কার্যালয় ঢাকার উপপরিচালক মঞ্জুর মোহাম্মদ শাহরিয়ারকে এস্টেট ও আইন কর্মকর্তা হিসেবে সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তর, খুলনা জোনে ন্যস্ত করা হলো। আগামী ১৩ ‍জুন তাকে বদলি করা কর্মস্থলে যোগ দেওয়ার জন্য অনুরোধ করা যেতে পারে। নতুন কর্মস্থলে যোগ না দিলে ১৩ জুন বিকেলে তিনি বর্তমান কর্মস্থল থেকে তাৎক্ষণিকভাবে অবমুক্ত (স্ট্যান্ড রিলিজ) বলে গণ্য হবেন।

এদিকে মঞ্জুর শাহরিয়ারের বদলির আদেশের বিষয়টি প্রকাশের পরপরই তা নিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সমালোচনার ঝড় উঠে।