নিজ এলাকায় ছাত্রলীগ ও আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের সাথে ছাত্রলীগ সভাপতির শুভেচ্ছা বিনিময়

১২:২২ পূর্বাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, জুন ৬, ২০১৯ রংপুর

রোহান ইসলাম,স্টাফ রিপোর্টার- মঙ্গলবার (৪ জুন) ভুরুঙ্গামারী উপজেলায় বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভনের উদ্যোগে স্থানীয় ছাত্রলীগ যুবলীগ ও আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের মধ্যে এক ইফতার মাহফিল ও আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়।

এসময় ছাত্রলীগ সভাপতি নিজ এলাকার আওয়ামী লীগ ও তার অঙ্গ সংগঠনের বিভিন্ন স্তরের নেতাকর্মীদের সাথে কুশল বিনিময় করেন। এছাড়া স্থানীয় ছাত্রলীগের কর্মীদের বিভিন্ন দিক নির্দেশনা প্রদান করেন।

এ সময় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নুরুন্নবী চৌধুরী খোকন (উপজেলা চেয়ারম্যান,ভূরুঙ্গামারী), মোস্তফা জামান (উপজেলা চেয়ারম্যান নাগেশ্বরী), এ ছাড়া উপস্থিত ছিলেন মো.রাকিনুল হক চৌধুরী ছোটন (আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদ), সালেকুর রহমান শাকিল (উপ-ত্রাণ ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা বিষয়ক সম্পাদক, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদ), সাইফুল সজীব (উপ- স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা বিষয়ক সম্পাদক, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদ) ছাড়াও স্থানীয় আওয়ামী লীগ ও তার অঙ্গ সংগঠনের বিভিন্ন স্তরের নেতাকর্মীবৃন্দ।

উল্লেখ্য, ২৯ তম সম্মেলনের মাধ্যমে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভনকে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সভাপতি হিসেবে মনোনীত করেন। কুড়িগ্রামের ভুরুঙ্গামারী ঐতিহ্যবাহী আওয়ামী পরিবারের সন্তান শোভন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের মেধাবী ছাত্র। তিনি আইন বিভাগ থেকে সদ্য মাস্টার্স সম্পন্ন করেছেন।

শোভনের দাদা মরহুম শামসুল হক চৌধুরী বীর মুক্তিযোদ্ধা, মুক্তিযুদ্ধ সংগঠক (৬নং সেক্টর এর প্রচার বিভাগের চেয়ারম্যান), কুড়িগ্রাম-১ আসনের আওয়ামী লীগের এমপি ১৯৭৩ ও ১৯৭৯। ১৯৭৫ পরবর্তী ১৯৭৭ সালে দেশ ও দলের ক্রান্তিলগ্নে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কুড়িগ্রাম জেলা শাখার সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন। ২০০১ সালেও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ এর মনোনীত প্রার্থী হিসেবে নৌকা প্রতীকে জাতীয় নির্বাচন করেন।

শোভনের বাবা, যিনি ১৯৮১ সালে ভুরুঙ্গামারী উপজেলা শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি ও ১৯৯১ সালে থানা যুবলীগের সভাপতি নির্বাচিত হয়েছিলেন । ২০০১ সালে থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক (২০০১-২০১০) ও ২০১১ সালে পুনরায় থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক (২০১১-অদ্যাবধি)। এর পাশাপাশি তিনি নির্বাচিত উপজেলা চেয়ারম্যান।