সংবাদ শিরোনাম
মহিলাকে রাম দা দেভিয়ে ফেঁসে গেলেন যুবলীগ নেতা! | মেয়ের বাড়িতে মিলিত হতে গিয়ে আপত্তিকর অবস্থায় ধরা পড়ল যুবক! | ঘরের দরজা খুলে গৃহবধূর মুখ চিপে চারজন মিলে পালাক্রমে গনধর্ষণ! | ১০ বছরের শিশুকে সুপারি বাগানে নিয়ে ধর্ষণচেষ্টা চালাল রিক্সা চালক! | গায়ে হলুদের অনুষ্ঠানে অশ্লীল নৃত্য ও মদের আসরের প্রতিবাদ করায় প্রবাসীকে পিটিয়ে হত্যা! | ভারতের কাছে পাকিস্তানের লজ্জার হার! | আমেরিকার ঘুম হারাম করতে অবাক করা খবর দিলেন এরদোগান! | জাদুর খেলা দেখাতে গিয়ে মাঝনদীতে ‘ভ্যানিস’ জাদুকর! | মুক্তিযুদ্ধে চেতনা ও দক্ষতা বিবেচনায় পদোন্নতির নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর | রাজবাড়ীতে ইউপি চেয়ারম্যান কালাম মৃধাকে কুপিয়ে যখম |
  • আজ ৩রা আষাঢ়, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

রংপুরের বিনোদন স্পটগুলোতে মানুষের ঢল

৬:২৫ অপরাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, জুন ৬, ২০১৯ রংপুর
rangpur

মেজবাহুল হিমেল, রংপুর- ব্যস্তময় রংপুর মহানগরী থেকে একটু দূরে কোলাহলমুক্ত সবুজ শ্যামল প্রকৃতির ছায়ায় ঘেরা প্রয়াস সেনা বিনোদন পার্ক, ভিন্নজগত, ফ্যান্টাসি জোন, সিটি চিকলি পার্কসহ রংপুরের বিনোদন স্পটগুলোতে মানুষের উপচে পড়া ঢল নেমেছে। একই চিত্র দেখা গেছে, রংপুর চিড়িয়াখানা, কালেক্টরেট সুরভী উদ্যান, মহিপুরঘাট, তিস্তা সড়ক সেতু পয়েন্ট, টাউন হল চত্ত্বর, বেরোবি ক্যাম্পাসসহ নগরীর একমাত্র সিনেমা হল শাপলা টকিজে। মুসলমানদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব ঈদ-উল-ফিতরকে ঘিরে ঈদ আনন্দে মেতে উঠছে এ অঞ্চলের মানুষ।

নিসবেতগঞ্জের স্মৃতিবিজড়িত রক্তগৌরব চত্ত্বর, ঘাঘট নদীর অংশ বিশেষসহ পাশ্ববর্তী বিস্তৃত নিচু এলাকায় গড়ে ওঠেছে প্রয়াস সেনা বিনোদন পার্ক। এখানে সেনা সদস্যদের নিখুঁত কারিগরি পরিকল্পনায় বাঁশ ব্যবহারে সাজানো এ বিনোদন পার্কের মুল গেট পেরিয়ে প্রথমেই চোখে পড়বে অসংখ্য রকমারী দোকান। ঠিক যেমন সমুদ্র সৈকত পাড়ের আদলে রকমারী দোকানের হাট। নানা রকমের পণ্য দিয়ে সাজানো হয়েছে দোকানগুলো।

হস্তশিল্প সামগ্রী, খেলনা, খাবারের দোকান, নদীর বুকে ভাসমান বিলুপ্ত আশির দশকের বেশ কিছু নৌকা নজর কাড়ছে দর্শনার্থীদের। কেউ কেউ আনন্দের মাত্রা বাড়াতে ক্যামেরার ক্লিকে স্মৃতির ফ্রেমে বন্দি করছেন প্রিয় মূহুর্তগুলোকে।

অন্যদিকে রংপুর সিটি কর্পোরেশনের উদ্যোগে বাংলাদেশ বেতার রংপুর কেন্দ্রের কোল ঘেষেই নির্মিত রংপুর সিটি চিকলি পার্ক। সেখানে বিশাল চিকলিবিলের আশপাশ ঘিরে সাজানো হয়েছে শিশু-কিশোরদের আকৃষ্ট করার মতো নানা আয়োজন। বিলের বুকে স্পিডবোর্ড চলছে দ্রুত বেগে এ পাশ থেকে ওপাশ। হৈ হুল্লোরে মেতে উঠছে সবাই। আর স্পিডবোর্ডের ছুটে চলার বেগে বড় বড় ঢেউ এসে ধাক্কা মারছে বিলের দু’কূলে। ছিটকে আসা জলরাশিতে মজা করছেন ছোট বড় সব মানুষই।

এখানে দিনের আলো পুবাকাশে হারিয়ে গেলেই সন্ধ্যায় আকাশে অন্যরকম এক দৃশ্যের অবতারণ দেখা যায়। মেঘের কোলে দোল খেতে খেতে নিভে যায় দিনের প্রদীপ। তখন দূর থেকে ভেসে চিরচেনা ভাওয়াইয়ার সুর।

চিকলি পার্কের মতো ভিন্নজগত, রংপুর বিনোদন উদ্যান ও চিড়িয়াখানা, কালেক্টরেট সুরভী উদ্যান, ফ্যান্টাসি জোন, মহিপুরঘাট, তিস্তা সড়ক সেতু পয়েন্ট, টাউন হল চত্ত্বর, বেরোবি ক্যাম্পাসসহ রংপুর মহানগরীর একমাত্র সিনেমা হল শাপলা টকিজেও মানুষের উপচে পড়া ভীড় দেখা গেছে।
রংপুর বিনোদন উদ্যান ও চিড়িয়াখানায় পরিবার নিয়ে ঘুরতে আসা মাজেদুল ইসলাম মাজেদ নামে এক পুলিশ কর্মকর্তা বলেন, ব্যস্ততা আর ডিউটির মাঝে একটু সময় করে ঘুরতে খুবই ভালো লাগছে।

অন্যদিকে চিকলি পার্কে কথা হয় রেজা নামে এক ব্যাংক কর্মকর্তার সাথে। এসময় তিনি শোলাকিয়ার ঘটনার প্রসঙ্গ ধরে বলেন, ঈদের দিন যারা শোলাকিয়া ঈদগাহ্ মাঠের কাছে সন্ত্রাসী হামলা করে। মানুষ হত্যা করে। ককটেল বিস্ফোরণ ঘটায়। তারাতো মানুষ না। ওদের কোনো ধর্ম নেই। ওরা ধর্মের নামে যারা মানুষ হত্যা করে যে পরিস্থিতি সৃষ্টি করতে চাইছে, তা ছোট বড় সব বসয়ী মানুষের এ ঢলই ভেস্তে যাবে। আমরা কেউই ভীতু নই।

প্রয়াস বিনোদন পার্কে হামিদা আফরোজা উর্মিসহ বেশ কয়েকজন তরুণ জানান, নগরীর এতো কাছাকাছি সুন্দর পরিবেশে এসে মন ভরে গেছে। সুশৃংখল পরিবেশে আমরা খুবই খুশি। এখানে না এলে ঈদের আনন্দটাই মিস করতাম।

প্রকৃতি ও বিনোদন প্রেমীর জন্য অত্যন্ত ভালো বিনোদনের জায়গা রংপুরের বিনোদন স্পটগুলো। আর ঈদ এলে এই সব স্পট হয়ে যায় মানুষের ভীড়ে কানায় কানায় পূর্ণ।