সংবাদ শিরোনাম
মহিলাকে রাম দা দেভিয়ে ফেঁসে গেলেন যুবলীগ নেতা! | মেয়ের বাড়িতে মিলিত হতে গিয়ে আপত্তিকর অবস্থায় ধরা পড়ল যুবক! | ঘরের দরজা খুলে গৃহবধূর মুখ চিপে চারজন মিলে পালাক্রমে গনধর্ষণ! | ১০ বছরের শিশুকে সুপারি বাগানে নিয়ে ধর্ষণচেষ্টা চালাল রিক্সা চালক! | গায়ে হলুদের অনুষ্ঠানে অশ্লীল নৃত্য ও মদের আসরের প্রতিবাদ করায় প্রবাসীকে পিটিয়ে হত্যা! | ভারতের কাছে পাকিস্তানের লজ্জার হার! | আমেরিকার ঘুম হারাম করতে অবাক করা খবর দিলেন এরদোগান! | জাদুর খেলা দেখাতে গিয়ে মাঝনদীতে ‘ভ্যানিস’ জাদুকর! | মুক্তিযুদ্ধে চেতনা ও দক্ষতা বিবেচনায় পদোন্নতির নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর | রাজবাড়ীতে ইউপি চেয়ারম্যান কালাম মৃধাকে কুপিয়ে যখম |
  • আজ ৩রা আষাঢ়, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

আড়াই বছর পর ৬ বাংলাদেশি তরুণীকে হস্থান্তর করলো ভারতীয় পুলিশ

৮:০৭ পূর্বাহ্ণ | মঙ্গলবার, জুন ১১, ২০১৯ খুলনা
simanto

বেনাপোল প্রতিনিধি- ভারতে আড়াই বছর কারাভোগের পর ৬ বাংলাদেশি তরুণীকে সোমবার রাতে বেনাপোল চেকপোস্ট দিয়ে বাংলাদেশে হস্থান্তর করেছে ভারতীয় পুলিশ। রাত সাড়ে ৯ টায় ভারতের পেট্রাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশ তাদেরকে বেনাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশের হাতে তুলে দেয়।

ফেরত আসা বাংলাদেশি তরুনীরা হলেন, গাইবান্ধার মুরসিদা বেগম (২১), রাবিয়া খাতুন (২৩), ও বাগেরহাটের নিসাত আক্তার বৃষ্টি (২০), যশোরের কল্পনা গাজী (২৫), সাথী সরদার (২২) ও রহিমা খাতুন (১৮)।

জাস্টিস এন্ড কেয়ার নামে একটি এনজিও সংস্থার যশোর শাখার তথ্য ও অনুসন্ধ্যান কর্মকর্তা এবিএম মুহিত হোসেন জানান, সংসারে অভাব-অনটনের কারণে ভালো কাজের আশায় ৩ বছর আগে এসব বাংলাদেশি তরুনীরা দালালের খপ্পরে পড়ে সীমান্ত পথে ভারতের মুম্বাই শহরে যায়।

এ সময় অবৈধ অনুপ্রবেশের অভিযোগে মুম্বাই পুলিশ তাদের আটক করে। পরে তাদের আদালতের মাধ্যমে জেলে প্রেরন করা হয়। সাজার মেয়াদ শেষে মুম্বাই নবজীবন নামে একটি শেল্টার হোম তাদেরকে ছাড়িয়ে নিজেদের আশ্রয়ে রাখে। পরে দু’দেশের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের যোগাযোগে র মাধ্যমে তাদের দেশে ফেরার ব্যবস্থা করা হয়।

বেনাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল বাশার জানান, ভালো কাজের আশায় ৩ বছর আগে এসব বাংলাদেশি তরুনীরা দালালের খপ্পরে পড়ে সীমান্ত পথে ভারতের মুম্বাই শহরে যায়। সাজার মেয়াদ শেষে আজ তাদের দেশে ফেরত আনা হয়। কাগজ পত্রের আনুষ্ঠানিকতা শেষে তাদেরকে বেনাপোল পোর্টথানা পুলিশের কাছে হস্থান্তর করা হয়। তাদের পরিবারের হাতে তুলে দেওয়ার জন্য।