ঈদের দাওয়াত দিয়ে এনে তরুণীকে ধর্ষণ: মাথা ন্যাড়া করেও রেহাই পেল না ধর্ষক

৭:১১ অপরাহ্ণ | মঙ্গলবার, জুন ১১, ২০১৯ ঢাকা, দেশের খবর

সৈয়দ সিফাত লিংকন, নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি: ঈদের দাওয়াত দিয়ে চট্রগ্রাম থেকে নারায়ণগঞ্জে এনে তরুণীকে ধর্ষণের ঘটনায় অভিযুক্ত সানিকে আটক করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার (১১ জুন) সকালে সাইনবোর্ড এলাকাস্থ একটি বাস কাউন্টারের সামনে থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

এরআগে গ্রেফতার এড়াতে ধর্ষক সানি মাথার চুল ন্যাড়া করে ছদ্মবেশ ধারণ করেছিল। কিন্তু সদর মডেল থানা ওসি মো.কামরুল ইসলাম বিভিন্ন কৌশল অবলম্বন করে ধর্ষণের ঘটনার ১০ ঘন্টার মধ্যে তাকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়।

প্রসঙ্গত, ঈদের ছুটিতে ৭ জুন (শুক্রবার) সানির দাওয়াতে চট্টগ্রাম থেকে নারায়ণগঞ্জে আসেন ওই তরুণী। পরে শহরের গলাচিপায় শ্যামলী পরিবহনের কাউন্টারের পাশে একটি রুমে নিয়ে তাকে ধর্ষণ করেন সানি। ঘটনার পর তরুণীকে আরেকটি বাসে করে চট্টগ্রাম পাঠানোর চেষ্টা করা হয়। কিন্তু তাদের বাকবিতন্ডায় লোকজন জড়ো হলে সানি পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় ধর্ষিতা বাদী হয়ে সদর মডেল থানায় সানি, তার মা ও এক ভাই জড়িত দাবি করে তিনজনকে আসামি করে একটি মামলা দায়ের করেন।

এ বিষয়ে সদর মডেল থানা ওসি মো. কামরুল ইসলাম বিপিএম ও পিপিএম জানায়, নারায়ণগঞ্জ পুলিশ সুপারের কঠোর নির্দেশনা রয়েছে। যেকোন অপরাধের ব্যাপারে তিনি জিরো টলারেন্স। ভুক্তভোগীর অভিযোগের ভিত্তিতে এসপি স্যারের নির্দেশে আমি ও পুলিশের টিম তাকে গ্রেফতারের অভিযানে নামি।

গোপন সংবাদের ভিত্তিতে প্রথমে জানতে পাই সে মুন্সিগঞ্জ জেলায় পলাতক রয়েছে। পরবর্তীতে প্রযুক্তির ব্যবহারের মাধ্যমে তাকে সাইনবোর্ড থেকে আটক করি। তবে সে আমাদের থেকে নিজেকে বাচাঁতে চুল ন্যাড়া করে ফেলে। এরপরেও এমন তথ্য আগে থেকেই আমাদের পুলিশ জেনে ফেলায় তাকে দ্রুত আটক করা সম্ভব হয়েছে।