যশোরের শার্শার সেই মাদ্রাসা ছাত্রের খুনি তার শিক্ষকই

৪:৫৯ অপরাহ্ণ | বুধবার, জুন ১২, ২০১৯ খুলনা, দেশের খবর

মহসিন মিলন, বেনাপোল প্রতিনিধি- যশোরের শার্শা উপজেলায় চাঞ্চল্যকর মাদ্রাসা ছাত্র শাহপরান হত্যা মামলার প্রধান আসামী কাগজপুকুর হাফিজিয়া মাদ্রাসার শিক্ষক হাফিজুরকে আটক করেছে পুলিশ।

বুধবার ভোর রাতে খুলনা জেলার দিঘলিয়া উপজেলার একটি কওমি মাদ্রাসার ভিতর থেকে তাকে আটক করেন শার্শা থানার এসআই মামুনসহ পুলিশের একটি দল।

আটক হত্যাকারী হাফিজুর রহমান শার্শার গোগা গ্রামের মুজিবুর রহমানের ছেলে।

বুধবার সকাল ১১ টায় যশোর জেলার নাভারণ সার্কেল এর অতিরিক্ত এএসপি জুয়েল ইমরান শার্শা থানায় এক সংবাদ ব্রিফিংয়ে বলেন, বেনাপোল পোর্ট থানার কাগজপুকুর গ্রামের শাহজানের ছেলে শাহ পরানের লাশ উদ্ধার করা হয় ১১ দিন আগে। আর এ ঘটনায় বিভিন্ন তথ্য উপাত্তের ভিত্তিতে মাদ্রাসা শিক্ষক হাফিজুর রহমান জড়িত বলে প্রমাণ পাওয়া যায়।

গত ২ জুন লাশ উদ্ধারের পর থেকে হাফিজুর পলাতক রয়েছে। তাকে আটকের ব্যাপারে তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার করে অভিযান পরিচালনা করে তাকে আটক করা হয়।

উল্লেখ্য, গত ২ জুন গোগা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুর রশিদের ফোনের ভিত্তিতে শার্শা থানা পুলিশ গোগা গাজীপাড়া মাদ্রাসা শিক্ষক হাফিজুরের ঘরের খাটের নীচে থেকে শাহপরানের গলিত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। এর ৩/৪ দিন আগে বেনাপোল কাগজপুকুর হাফিজিয়া মাদ্রাসার ছাত্র শাহপরান নিখোঁজ হয় তার নিজ বাড়ি থেকে।

গোগা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়াম্যান আব্দুর রশিদ বলেন, আমি আসামি হাফিজুরের ভাইয়ের নিকট থেকে তার নতুন মোবাইল সিমের নাম্বার পুলিশকে দেওয়ার ভিত্তিতে পুলিশ অভিযান চালিয়ে তাকে ধরতে সক্ষম হয়।