সংবাদ শিরোনাম
  • আজ ১২ই আষাঢ়, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

ইসলামপুরে গুদাম থেকে ২০৬ বস্তা ভিজিডির চাল উধাও

৭:৩০ পূর্বাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, জুন ১৩, ২০১৯ ময়মনসিংহ

আবদুল লতিফ লায়ন,জামালপুর প্রতিনিধি : জামালপুরের ইসলামপুরে চেয়ারম্যান জিয়ারউর রহমান সনেটের বাড়িতে কুলকান্দি ইউপির অস্থায়ী  কার্যালয় থেকে ভিজিডি প্রকল্পের ২০৬ বস্তা চাল উধাও হয়ে গেছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

এ ঘটনায় উপজেলা মহিলাবিষয়ক কর্মকর্তা মেহেরুন্নেছা ও সহকারী পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ওই ইউনিয়নের দায়িত্বপ্রাপ্ত ট্যাগ অফিসার জাকির হোসেন মঙ্গলবার দুপুরে ইউনিয়ন পরিষদে গিয়ে বস্তা গণনার পর চাল উধাওয়ের বিষয়ে নিশ্চিত হন। পরে তারা বিষয়টি লিখিতভাবে ইউএনওকে অবহিত করেন।

এ ব্যাপারে বুধবার বিকালে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মিজানুর রহমান ঘটনার সত্যত্যা শিকার করে বলেন,“আজ (বুধবার) পর্যন্ত ইউপির চেয়ারম্যান আমার কাছে সময় নিয়েছে গুদাম থেকে উধাও হওয়া চাল বুঝিয়ে দেওয়ার জন্য। না দিতে পারলে আমি আইনানুগ ব্যবস্থা নিব”।

তবে এসব বিষয়ে অস্বীকার করে কুলকান্দী ইউপি’র চেয়ারম্যান জিয়াউর রহমান সনেট বলেন ,“আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে। আমার গুদামে চালের বস্তা ঠিকই আছে। চাল বিতরণের সময় কম হলে তারা আমার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নিবে”।

উপজেলা মহিলাবিষয়ক অফিস সূত্রে জানা যায়,কুলকান্দি ইউনিয়নের ভিজিডি প্রকল্পের আওতায় ২২৫জন সুবিধাভোগী রয়েছে। এই অভাবী মানুষগুলোকে প্রতি মাসে ইউপি কার্যালয় থেকে মাথাপিছু ৩০ কেজি করে চাল অথবা পুষ্টি আটা দেওয়ার কথা।

উপজেলা মহিলাবিষয়ক কর্মকর্তা মেহেরুন্নেছা বলেন, গত মার্চ মাসের এ ইউনিয়নের বরাদ্দের পুষ্টি আটা ও এপ্রিল মাসের বরাদ্দের মোট ৪৫০ বস্তা চাল এক মাস আগে উত্তোলন করে চেয়ারম্যান জিয়াউর রহমান সনেট তার বাড়ির অস্থায়ী ইউপি কার্যালয়ে নিয়ে যান।

তবে রহস্যজনক কারনে এসব চাল নির্দিষ্ঠ সময়ের মধ্যে সুবিধাভোগীদের মাঝে বিতরণ না করে দীর্ঘ এক মাস তার গুদামে মজুদ করে রাখেন। এসব মজুদকৃত চালের মধ্যে ২০৬ বস্তা চাল তার গুদাম থেকে উধাও হয়ে যায়।