গোপালগঞ্জে আওয়ামী লীগ অফিস পূর্ণ নির্মানে বাধা

৩:৪৯ অপরাহ্ণ | শুক্রবার, জুন ১৪, ২০১৯ স্পট লাইট

এইচ এম মেহেদী হাসানাত, ষ্টাফ রিপোর্টার গোপালগঞ্জ: গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়া উপজেলার রাধাগঞ্জ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ৪নং ওয়ার্ড কার্যালয় পূর্ণনির্মানে ইউনিয়ন ভূমি অফিস থেকে বাধা দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। এ নিয়ে এলাকার আওয়ামী লীগ দলীয় নেতা-কর্মীদের মাঝে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

জানাগেছে, ১০ বছর আগে উপজেলার মনোহার মার্কেটে রাধাগঞ্জ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ৪নং ওয়ার্ড কার্যালয় নির্মান করা হয়। বর্তমানে কার্যালয়টি নেতা-কর্মীদের ব্যবহারের অনুপযোগী হয়ে পড়লে তারা কার্যালয়টি পূর্ননির্মানের কাজ শুরু করেন। এ সময় রাধাগঞ্জ ইউনিয়ন ভূমি অফিসের তহসিলদার অসীম কুমার বিশ্বাস ও অফিস সহকারী ফিরোজ আহম্মেদ নির্মান কাজে বাধা দেয়। এ নিয়ে দলীয় নেতা-কর্মীরা ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন।

রাধাগঞ্জ ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি সঞ্জয় বিশ্বাস বলেন, আমরা দীর্ঘদিন ধরে এই কার্যালয়ে বসে দলীয় কার্যক্রম পরিচালনা করি। কার্যালয়টি বর্তমানে জড়াজীর্ণ হয়ে পড়ায় আমরা পূর্ণনির্মানের কাজ শুরু করি। কাজ শুরুর কিছু দিন পড়ে রাধাগঞ্জ ভূমি অফিসের তসিলদার অসীম কুমার বিশ্বাস ও অফিস সহকারী ফিরোজ আহম্মেদ কাজে বাধা দেয় এবং ১০হাজার টাকা ঘুষ দাবি করেন।

এ বিষয়ে জানার জন্য তহসিলদার অসীম কুমার বিশ্বাসের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করে তাকে পাওয়া যায়নি। তবে অফিস সহকারী ফিরোজ আহম্মেদ বলেন, স্যার (তসিলদার) চিকিৎসার জন্য বর্তমানে ভারতে আসেন। আমাদের বিরুদ্ধে ঘুষ চাওয়ার যে বিষয়টি সম্পূর্ণ উঠেছে তাহা মিথ্যা ও ভিত্তিহীন। জেলা পরিষদ সদস্য দেবদুলাল বসু পল্টু এখানে সরকারি জায়গায় তার অফিসঘর নির্মান করছেন। সরকারি জায়গা হওয়ায় আমরা তহসিল অফিস থেকে বাধা দিয়েছি।

যুবলীগ নেতা সুমন বোস বলেন, এই ঘরটি নির্মানে আমার চাচা জেলা পরিষদ সদস্য দেবদুলাল বসু পল্টুর কোন সম্পৃক্ততা নেই। এটি রাধাগঞ্জ ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের দলীয় নেতা-কর্মীরা নির্মান করছে। একটি বিশেষ মহল দেবদুলাল বসু পল্টুর পরিচ্ছন্ন রাজনৈতিক ক্যারিয়াকে বির্তকিত করার চেষ্টা করছে।